Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » বিশ্বকাপের আগে পেসারদের হুমকি সাকিবের




বিশ্বকাপের আগে পেসারদের হুমকি সাকিবের ছবি- সংগৃহীত চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে। যেখানে স্পিনাররা বল হাতে সুবিধাই করতে পারেন না, বরং পেসারদের জন্য থাকে দারুণ সুবিধা। অথচ বাংলাদেশ বলতে স্পিনারদের খনি। যদিও সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের পেসাররা নিজেদের উঠিয়ে আনছেন। কিন্তু ডেথ ওভারে এসে যেন বোলিংটাই ভুলে যান তারা। সদ্য শেষ হওয়া এশিয়া কাপেও বাংলাদেশের পেস বোলারদের অসহায় আত্মসমর্পণে দুটি ম্যাচই হেরেছে বাংলাদেশ। আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন পেসারের জন্য শেষ ৬ ওভারে ৬৩ রানের পুঁজি রেখেছিল টাইগার অন্য বোলাররা। শারজার স্লো পিচে যে রান উঠানোটাই কঠিন মনে হচ্ছিল, তবে বাংলাদেশি পেসারদের বাজে বোলিংয়ে আফগানিস্তান ৯ বল আগেই জয় তুলে নেয়। সেই ম্যাচে ৮ ওভারে ৭৯ রান দেয় বাংলাদেশের পেসাররা। এরমধ্যে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় সময়ে মুস্তাফিজ এক ওভারে ১৭ এবং সাইফউদ্দীন ২২ রান হজম করেন। একই চিত্র দেখা যায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচেও। যেখানে মুস্তাফিজ ৪ ওভারে ৩২, আর এবাদত তো রীতিমতো বল হাতে ফিফটি ছুঁয়ে ফেলেন। ফলাফল, বাংলাদেশের পরাজয়। এশিয়া কাপ থেকেও দুই ম্যাচ খেলে বিদায় সাকিব বাহিনীদের। এশিয়া কাপে খারাপ খেললেও আসন্ন বিশ্বকাপের লক্ষ্যে পেসারদের হুমকি দিয়ে রাখলেন সাকিব। লঙ্কানদের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে টাইগার অধিনায়ক পেসারদের হুমকি দিয়ে বলেন, ‘বিশ্বকাপের আগে নিউ জিল‍্যান্ডে আমাদের আরও চারটা ম‍্যাচ আছে। এগুলো অনেক সাহায‍্য করবে। এটা আমাদের জন‍্য চোখ খুলে দেওয়ার মতো ব‍্যাপার যে, পেসাররা চাপের সময় কেমন বোলিং করে। এই ধরনের পিচে, পেসারদের ১২ ওভার বোলিং করতে হবে। আমি বলছি না, ১২ ওভার করতেই হবে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ৩ পেসারের কাছ থেকে ১২ ওভার প্রত‍্যাশিত থাকবে। অন্তত ভালো ১০ ওভার প্রত‍্যাশা করবেন। অন‍্যান‍্য দেশগুলো হয়তো ১৪-১৫ ওভার পর্যন্ত প্রত‍্যাশা করে পেসারদের কাছ থেকে। সেখান থেকে আমরা ১০-১২ ওভার প্রত‍্যাশা করছি। আর এটা পেস বোলারদের ডেলিভার করতেই হবে। যারা ডেলিভার করতে পারবে, তারা থাকবে। যারা পারবে না, আসলে তারা থাকবে না। খুবই সহজ হিসাব এখানে। দুই ম্যাচে চার জন বোলারকে এখানে দেখতে পেরেছি। সামনে আরও চারটা ম‍্যাচ থাকবে। বিশ্বকাপে আশা করি, এমন ৪-৫ জন পেসার পাব, যারা আমাদেরকে ১২-১৪ ওভার দিতে পারবে। অস্ট্রেলিয়ার মতো জায়গায় আমাদের আসলে পেসার বোলারদের ওপর অনেক বেশি নির্ভর করতে হবে। আশা করি, বিশ্বকাপ আসতে আসতে আমরা ওরকম বোলার পাব, যারা আমাদের ১২ থেকে ১৩ ওভার প্রতি ম‍্যাচেই দিতে পারবে।’






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply