Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » ঘনিষ্ঠদের কাছে টেনে প্রভাবশালীদের বাদ দিলেন ট্রাস




দীর্ঘ লড়াই শেষে যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির প্রধান নির্বাচিত হয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্রাস। একই সঙ্গে মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) আনুষ্ঠানিকভাবে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্ব পেয়েছেন তিনি। ক্ষমতাগ্রহণের পরপরই মন্ত্রিসভায় বড় রদবদল এনেছেন ট্রাস। নতুন সরকারের এ মন্ত্রিসভায় একদিকে যেমন ঠাঁই পেয়েছেন ট্রাস ঘনিষ্ঠ অনেকে। তেমনি তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন দেশটির প্রভাবশালী অনেক নেতা। লিজ ট্রাস। ছবি: বিবিসি ট্রাসের নতুন মন্ত্রিসভায় অর্থমন্ত্রী (চ্যান্সেলর) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন কোয়াসি কোয়ার্টেং। এর আগে বরিস জনসনের অধীনে ব্যবসাবিষয়ক মন্ত্রী ছিলেন তিনি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েছেন সুয়েলা ব্র্যাভারম্যান। পররাষ্ট্রমন্ত্রী পদে নিয়োগ পেয়েছেন জেমস ক্লেভারলি, যনি আগে শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। যুক্তরাজ্যের নতুন উপপ্রধানমন্ত্রী ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন ট্রাসের কাছের বন্ধু থেরেসে কফে। এ ছাড়া দেশটির নতুন শিক্ষামন্ত্রী কিট মল্টহাউস, প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেস, আন্তঃসরকারি সম্পর্ক ও সমতাবিষয়কমন্ত্রী নাদিম জাহাবি, জ্বালানি ও শিল্পমন্ত্রী জ্যাকব রিস-মগ, সংস্কৃতিমন্ত্রী মিশেল ডনেলান, লেভেলিং আপ মন্ত্রী সাইমন ক্লার্ক, পরিবেশমন্ত্রী রনিল জয়াবর্ধনা, ওয়ার্ক অ্যন্ড পেনশন মন্ত্রী ক্লোয়ে স্মিথ, পরিবহনমন্ত্রী অ্যান-মারি ট্রেভেলিয়ান, নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডবিষয়ক মন্ত্রী ক্রিস হিটন-হ্যারিস, স্কটল্যান্ডবিষয়ক মন্ত্রী অ্যালিস্টার জ্যাক এবং ওয়েলসবিষয়ক মন্ত্রী হয়েছেন স্যার রবার্ট বাকল্যান্ড। বাদ পড়লেন যারা লিজ ট্রাস প্রধানমন্ত্রী হওয়ার আগে সোমবারই (৫ সেপ্টেম্বর) পদত্যাগের ঘোষণা দেন যুক্তরাজ্যের সদ্য সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল এবং সংস্কৃতিমন্ত্রী নাদিন ডরিস। প্রীতি প্যাটেলকে মন্ত্রিসভায় রাখা হবে বলে শোনা গেলেও তার আগেই ‘স্বেচ্ছায়’ পদত্যাগ করার কথা জানান তিনি। আর ট্রাসের প্রচারশিবিরের অন্যতম বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব নাদিন ডরিসকে মন্ত্রিসভায় থাকতে বলা হলেও তিনি ‘উপন্যাস লেখায়’ সময় দেয়ার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন। নেতৃত্বের প্রতিযোগিতায় ঋষি সুনাককে সমর্থন করা উপপ্রধানমন্ত্রী এবং বিচারবিষয়ক মন্ত্রী ডমিনিক রাব পড়েছেন সদ্যঘোষিত মন্ত্রিসভা থেকে। একইভাবে বাদ পড়েছেন পরিবহনমন্ত্রী গ্রান্ট শ্যাপস, স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্টিভ বার্কলে, লেভেলিং আপ মন্ত্রী গ্রেগ ক্লার্ক এবং নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডবিষয়ক মন্ত্রী শৈলেশ ভারা। আরও পড়ুন: লিজ ট্রাসের শপথের আগে দুই মন্ত্রীর পদত্যাগ আগের মন্ত্রিসভার অভিজ্ঞ মন্ত্রী জনি মার্সারকেও বরখাস্ত করা হয়েছে। বাদ পড়েছেন পার্টির কো-চেয়ারম্যান অ্যান্ড্রু স্টিফেনসনও। থাকছেন না ঋষি সুনাকের আরেক সমর্থক, সাবেক লেভেলিং আপ মন্ত্রী মাইকেল গভ। যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার ক্ষেত্রে শেষ পর্যন্ত লিজ ট্রাসের প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন ঋষি সুনাম। ট্রাসের জয় নিশ্চিত হওয়ার পর সুনাক নিজেই নতুন মন্ত্রিসভায় থাকবেন বলে মনে করা হয়েছিল। তবে ঋষি সুনাক বিবিসিকে বলেছেন, ‘আমি এমন কিছু ভাবছি না’।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply