Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » রানি রেখে গেছেন ৫ হাজার কোটি টাকা




রানি রেখে গেছেন ৫ হাজার কোটি টাকা দীর্ঘ ৭০ বছরের বেশি সময় সিংহাসনে আসীন ছিলেন ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। অনেক লম্বা এই সময়ে বিশাল পরিমাণ সম্পত্তি অর্জন করেছেন তিনি। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর তার সম্পত্তির পরিমাণ জানতে উৎসুক গোটা বিশ্ব। রানির মৃত্যুর পর এবার তার সম্পত্তির পরিমাণ প্রকাশ করল বিখ্যাত ম্যাগাজিন ফরচুন।

ম্যাগাজিনটির তথ্য অনুযায়ী, মৃত্যুর আগে ৫০০ মিলিয়ন ডলার অর্থাৎ পাঁচ হাজার কোটি টাকার সমপরিমাণ সম্পত্তি রেখে গেছেন ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। বিনিয়োগ, অলঙ্কার ও রিয়েল এস্টেট থেকে এ বিপুল পরিমাণ অর্থ আয় করেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। এ ছাড়া মায়ের কাছ থেকে পারিবারিক সম্পত্তিও পেয়েছেন তিনি, যা যোগ করার পরই বিশাল এ সম্পত্তির মালিক বনেছেন। তবে রানি মারা যাওয়ায় কে হবেন তার বিশাল এ সম্পত্তির উত্তরাধিকারী। তা নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে কৌতূহলের শেষ নেই। বিখ্যাত ম্যাগাজিন ফরচুনের তথ্য অনুযায়ী, রানির রেখে যাওয়া অঢেল সম্পত্তির উত্তারাধীকার সূত্রে সিংহাসনে আরোহণের পর পরই মালিক বনে যাবেন তার বড় ছেলে ব্রিটেনের নতুন রাজা তৃতীয় চার্লস। রাজপরিবারের নিয়ম অনুযায়ী পরবর্তী সিংহাসনে আরোহণকারী ব্যক্তিই বিশাল এ সম্পত্তির মালিক হন। রানির আয়ের উৎস জানতেও আগ্রহের শেষ নেই সাধারণ মানুষের। সে বিষয়টিও মানুষের মাঝে তুলে ধরার চেষ্টা করেছে আন্তর্জাতিক এ ম্যাগাজিনটি। রানি এলিজাবেথের সম্পত্তি নিয়ে নানা কথা প্রচলিত আছে। রাজা তৃতীয় জর্জ ও ব্রিটিশ পার্লামেন্টের মধ্যে এক চুক্তি অনুযায়ী রাজা জর্জ সব সম্পত্তি পার্লামেন্টকে দিয়ে দেন। এর বদলে রাজপরিবারকে ব্রিটিশ সরকার প্রতিবছর থোক একটা অর্থ দেয়। একে আগে 'নাগরিক তালিকা' বলা হলেও ২০১২ সালের পর থেকে এ অর্থকে 'সার্বভৌম অনুদান' বলা হয়। আরও পড়ুন: রানির মৃত্যুতে ১ বিলিয়ন পাউন্ডের সম্পত্তি পাচ্ছেন প্রিন্স উইলিয়াম বাকিংহাম প্যালেস সূত্রে জানা যায়, এই অনুদানের পরিমাণ ২০২১ এবং ২০২২ সালে ৯৪৮ কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়েছিল। এই তহবিল অফিশিয়াল ভ্রমণ, সম্পত্তি রক্ষণাবেক্ষণ এবং রানির পরিবারের পরিচালন খরচের জন্য বরাদ্দ করা হয়। এ ছাড়া রাজপরিবারের রয়েছে পারিবারিক ব্যবসা। দুই হাজার ৮০০ কোটি টাকার বিশাল এ ব্যবসাকে রয়্যাল ফার্ম বলা হয়। রাজা ষষ্ঠ জর্জ ও প্রিন্স ফিলিপ এটিকে পারিবারিক ব্যবসাও বলে থাকেন। এ দুটিই মূলত রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের আয়ের মূল উৎস ছিল। আরও পড়ুন: রানির মৃত্যুতে ব্রিটিশ রাজতন্ত্রে আসছে বড় পরিবর্তন রানিসহ রাজপরিবারের আট সদস্য রয়্যাল ফার্মের সদস্য ছিলেন। বাকিরা হলেন প্রিন্স চার্লস (বর্তমান রাজা) এবং তার স্ত্রী ক্যামিলা, প্রিন্স উইলিয়াম এবং তার স্ত্রী কেট, রানির মেয়ে প্রিন্সেস অ্যান, রানির ছোট ছেলে প্রিন্স এডওয়ার্ড এবং তার স্ত্রী সোফি। যুক্তরাষ্ট্রের সাময়িকী ফোর্বস বলছে, ২০২১ সাল পর্যন্ত এই রাজপরিবারের আনুমানিক ২৮ বিলিয়ন ডলারের সম্পদ রয়েছে, যেগুলো বিক্রি করা যাবে না। তবে রাজা তৃতীয় চার্লস এখনো ২৮ বিলিয়ন ডলারের সাম্রাজ্যের সরাসরি উত্তরাধিকার হবেন না। তিনি কেবল রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের বিশেষভাবে মনোনীত ব্যক্তিগত সম্পদ পাবেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply