Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » » হামলাকারীকে রুখে দেওয়া সেই যুবককে যা বললেন ইমরান খান




সমাবেশে ভয়াবহ হামলার শিকার হয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই ইনসাফের (পিটিআই) প্রধান ইমরান খান। তবে বন্দুকধারীকে শুরুতেই আটকে ফেলতে না পারলে আরও ভয়াবহ পরিণতি হতে পারত। হামলাকারীকে রুখে দিয়েছিলেন যুবক ইবতাশাম হাসান। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ইমরান খানের সঙ্গে দেখা করেছেন ইবতাশাম। nagad-300-250 শুক্রবার সাক্ষাতের সময় ইবতাশামকে পাকিস্তানের নায়ক (পাকিস্তান কো হিরো হো তুম) বলে উল্লেখ করেন ইমরান খান। এ সময় হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে ইবতাশামের টি-শার্টে অটোগ্রাফ দেন ইমরান খান। তিনি বলেন, ‘তুমি পাকিস্তানের হিরো। বড় হৃদয়ের মানুষ। অনেক ভালো লেগেছে।’ এ সময় যুবক ইবতাশাম ইমরান খানকে বলেন, ‘আপনিই আমাদের হিরো’। উজিরাবাদের ওই যুবকের বাড়িতে যাওয়ারও প্রতিশ্রুতি দেন ইমরান। ইমরান খানকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচিয়েছেন সাহসী ইবতাশাম। ইমরানকে লক্ষ্য করে একে-৪৭ অস্ত্র থেকে গুলি চালানোর সময় তৎপর হয়ে ওঠেন ওই যুবক। ঠিক সময়ে তিনি তৎপর না হলে নিহতও হতে পারতেন এ সাবেক পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। পিটিআই চেয়ারম্যানকে বাঁচিয়ে এখন প্রশংসায় ভাসছেন ওই যুবক। এআরওয়াই নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ সাহসী পাকিস্তানী যুবক বলেন, ‘আমি দাঁড়িয়েছিলাম, হঠাৎ দেখলাম আমার থেকে ১০-১২ ফুট দূরে এক ব্যক্তি পিস্তল বের করে (ইমরান খানের দিকে) তাক করছে। এ সময় আমি ছুটে গিয়ে তাকে ধরে ফেলি।’ ইবতাশাম বলেন, ‘আমি (তার কাছে) পৌঁছানোর আগেই সে এক রাউন্ড গুলি করে ফেলেছে। তার কাছে পৌঁছে আমি প্রথমেই তার বন্দুক ধরা হাতটি ধরে ফেলি। এ সময় (হামলাকারী) যেসব গুলি ছুড়েছে সেগুলো একটাও আর ঠিক লক্ষ্যে আঘাত করতে পারেনি।’ তিনি বলেন, ‘তারপরই সে আমার হাত ছাড়িয়ে সামনের দিকে ছুটে পালানোর চেষ্টা করে। আমিও তার পিছু দৌঁড়ে কয়েক মিনিটের মধ্যেই ধরে ফেলতে সক্ষম হই, আলহামদুলিল্লাহ। তার পর পুলিশ তাকে আটক করে নিয়ে যায়।’ বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদ থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে পাঞ্জাব প্রদেশের ওয়াজিরাবাদে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। সাবেক ক্রিকেট তারকা থেকে রাজনীতিক বনে যাওয়া ইমরান খান দেশটিতে আগাম নির্বাচনের দাবিতে লংমার্চ পালন করে আসছেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply