Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » এবার উরুগুয়েকে হারাতে চায় দক্ষিণ কোরিয়া




সৌদি আরব, জাপানের পর এবার আরেকটি অঘটনের জন্ম দিতে চায় দক্ষিণ কোরিয়া। ল্যাটিন আমেরিকার আরেক ফুটবল শক্তি দুই বারের চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়েকে হারিয়ে কাতার বিশ্বকাপে এশিয়ার দাপট বজায় রাখতে চায় দলটি। বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) কাতারের রাজধানী দোহার এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় মুখোমুখি হবে দল দুটি। সরাসরি দেখা যাবে বিটিভি, জিটিভি ও টি-স্পোর্টস চ্যানেলে। দক্ষিণ কোরিয়া ফুটবলের পোষ্টারবয় বলা হয় সন হিউং মিনকে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে টটেনহ্যাম হটস্পারের হয়ে খেলেন এই মাস্কম্যান। তারকা এই ফুটবলার চলতি মাসের শুরুতে চ্যাম্পিয়নস লিগে মার্শেইয়ের বিপক্ষে ম্যাচে বাম চোখে আঘাত পান। যার কারণে অস্ত্রোপচারের টেবিলে যেতে হয় তাকে। ফলে বিশ্বকাপে খেলা নিয়ে সংশয়ে ছিলেন কোরিয়ান সমর্থকরা। তবে খুশির খবর হলো, কাতারে অনুষ্ঠেয় ফুটবল বিশ্বকাপে আজ উরুগুয়ের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম ম্যাচ থেকেই একাদশে থাকবেন সন হিউং মিন। বুধবার (২৩ নভেম্বর) ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার কোচ পাওলো বেন্তো। আজ এডিনসন কাভানি-লুইস সুয়ারেজদের বিপক্ষে মাঠে নামবে পাওলো বেন্তোর দক্ষিণ কোরিয়া। তার আগে সনের শারীরিক অবস্থা নিয়ে সমর্থকদের সংশয় দূর করেন এই কোচ। চোট থেকে ফিরে মুখে মাস্ক পরেই বিশ্বকাপ দলের অনুশীলনে যোগ দেন সন। চিকিৎসকরা ৩০ বছর বয়সী এ তারকাকে মাস্ক পরেই বিশ্বকাপের লড়াইয়ে নামার জন্য ফিট বলে জানান। তবুও এই অবস্থায় সন নিজেকে ভালোভাবে পরিবেশের সাথে খাপ খাওয়াতে পারবে কিনা- এমন প্রশ্নও উঠেছিল। সে সব প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন এশিয়ান প্রতিনিধি সেই কোচ। দক্ষিণ কোরিয়ার কোচ পাওলো বেন্তো বলেন, সে মাস্ক পরেই খেলবে, এটা তার জন্য অস্বস্তির কারণ হবে না। আমরা যে পরিকল্পনা করে এসেছিলাম, এখানে এসেও সেই পরিকল্পনাতেই আছি। সন দলের সঙ্গে খুব স্বাভাবিকভাবেই আছে। কালকে (আজ) কী হয় দেখা যাক। আশা করছি, মাঠে তার কোনো অস্বস্তি হবে না। কিন্তু এমন এক চোটের পর আমরা খুব বেশি ঝুঁকিও নেব না। বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ৬ ম্যাচ খেলে ৩ গোল করেছেন দক্ষিণ কোরিয় তারকা সন। সব মিলিয়ে দেশের জার্সিতে নিজে ৩৫ গোল করার পাশাপাশি করিয়েছেন আরও ১৭টি। ফলে তাকে নিয়েই বিশ্বকাপে ভালো কিছু করার স্বপ্ন দেখছে ২০০২ সালের সেমিফাইনালিস্টরা। এইচ-গ্রুপে উরুগুয়ে ছাড়াও দক্ষিণ কোরিয়ার বাকি দুই প্রতিপক্ষ ঘানা ও পর্তুগাল। তাই আগের দুই বিশ্বকাপে প্রথম পর্ব থেকে বিদায় নেয়া দলটির জন্য প্রথম ম্যাচটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এখন দেখার বিষয়, সন হিউং মিন তার দেশকে জয় এনে দিতে পারেন কিনা। পারলে সৌদি-জাপানের মতো আবারো উৎসবে মাতবে এশিয়া।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply