Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » কাতারকে হারিয়ে শেষ ষোলোয় নেদারল্যান্ডস




বিশ্বকাপে নিজেদের টিকে থাকার লড়াইয়ে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে আল বায়াত স্টেডিয়ামে কাতারের বিপক্ষে মাঠে নামে নেদারল্যান্ডস। কঠিন সমীকরণের ম্যাচে কাতারের বিপক্ষে ২-০ গোলে জয় নিয়ে শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে নেদারল্যান্ডস। প্রথমার্ধেই এগিয়ে যায় নেদারল্যান্ডস। ম্যাচের ২৬ মিনিটে কোডি গাকপোর গোলে এগিয়ে যায় ডাচরা। আগের দুই ম্যাচেও গাকপোই গোল করে এগিয়ে দিয়েছিলেন নেদারল্যান্ডসকে। ক্লাসেনের পাস থেকে দারুণ শটে বটম কর্নারে বল জালে জড়ান গাকপো। চতুর্থ ডাচ ফুটবলার হিসেবে বিশ্বকাপে টানা তিন ম্যাচে গোল করছেন এই ডাচ ফুটবলার। এর আগে জন নিকেনস (১৯৭৪), ডেনিস বার্জক্যাম্প (১৯৯৪) এবং ওয়েসলি স্নেইডার (২০১০) বিশ্বকাপে টানা তিন ম্যাচে গোল করেছিলেন নেদারল্যান্ডসের হয়ে। প্রথমার্ধে নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে সমানতালে লড়াই করছে কাতার। বেশ কিছু গোলের ভালো সুযোগ তৈরি করলেও তা কাজে লাগাতে পারেনি স্বাগতিকরা। ফলে প্রথমার্ধে ১-০ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় নেদারল্যান্ডস। প্রথম দুই ম্যাচে হারের পর প্রথম রাউন্ড থেকে আগেই বিদায় নিশ্চিত হয়েছে স্বাগতিকদের। শেষ ম্যাচে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে মরিয়া ছিল তারা। তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর দিকেই গোল হজম করে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় কাতার। ক্লাসেনের ক্রস থেকে গোলে শট নিয়েছিলেন ডিপাই। সেই ধট রুখে দেন কাতারের গোলরক্ষক। তবে রিবাউন্ড শটে ফাঁকা জালে বল পাঠিয়ে দলের হয়ে দ্বিতীয় গোল করেন ডি ইয়ং। এটা নেদারল্যান্ডসের হয়ে ডি ইয়ংয়ের দ্বিতীয় গোল। ২০১৯ সালে ডাচদের হয়ে প্রথম গোল করেছিলেন ডি ইয়ং, প্রতিপক্ষ ছিল জার্মানি। ম্যাচে ব্যবধান আরও বড় হতে পারতো নেদারল্যান্ডসের। ৬৮ মিনিটে স্টিফেন বার্গিস গোল করেছিলেন। তবে তা ভিএআরে বাতিল হয়ে যায়। কারণ তার কাছে বল যাওয়ার আগেই গাকপোর হাতে লেগেছিল বল। শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলের জয় নিয়েই বিশ্বকাপের শেষ ১৬ নিশ্চিত কর নেদারল্যান্ডস। অন্যদিকে প্রথম স্বাগতিক দল হিসেবে গ্রুপ পর্বের তিন ম্যাচে হেরে বিদায় নিলো কাতার। ২০১৮ বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলতে ব্যর্থ হয়েছিল নেদারল্যান্ডস। আগের দুই আসরে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান নিয়ে বিশ্বকাপ শেষ করে। এবার প্রত্যাশাটা আরও একটু বেশি ডাচদের।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply