Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » আচমকাই বন্ধ হল টুইটার, ইলন মাস্কের কর্মী ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্তের জের?




আজই একাধিক ইউজাররা টুইটার অ্যাক্সেস করতে পারলেন না। আচমকাই ফোনে বন্ধ হল টুইটার। যদিও মোবাইল থেকে টুইটার ব্যবহার করা গিয়েছে কিন্তু ওয়েব প্ল্যাটফর্মের ক্ষেত্রে এই সমস্যা দেখা দিয়েছিল। জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: এলন মাস্ক টুইটার কিনে নেওয়ার পর থেকেই মাইক্রো ব্লগিং সাইটে হেডকোয়ার্টারে একের পর এক চমক। আজ থেকেই প্রায় ৫০ শতাংশ কর্মী ছাঁটাই হতে পারে বলে খবর। এদিকে আজই একাধিক ইউজাররা টুইটার অ্যাক্সেস করতে পারলেন না। আচমকাউ ফোনে বন্ধ হল টুইটার। যদিও মোবাইল থেকে টুইটার ব্যবহার করা গিয়েছে কিন্তু ওয়েব প্ল্যাটফর্মের ক্ষেত্রে এই সমস্যা দেখা দিয়েছিল। টুইটারের ওয়েব ভার্সানটি খুললেই দেখা যাচ্ছিল, “Something went wrong, but don’t fret — let’s give it another shot"- এই লেখাটি। প্রায় ১ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে বন্ধ ছিল টুইটার। ওয়েবসাইট ডাউন ডিটেক্টরেও টুইটারের এই গোলযোগ ধরা পড়েছে। ডাউন ডিটেক্টরের তথ্য অনুসারে, ৯৪ শতাংশ রিপোর্ট করেছে ওয়েবে টুইটার বন্ধ হয়ে যাওয়া নিয়ে। অন্যদিকে, ৬ শতাংশ রিপোর্ট করেছে তারা ফোনে অ্যাক্সেস করতে পারেনি সেই সময়। এদিকে টুইটার অফিসে এখন তথৈবচ পরিস্থিতি। একেবারে টালমাটাল পরিস্থিতিও বলা যায়। জানা গিয়েছে ইলন মাস্ক নাকি প্রতিটি টুইটার কর্মীকে ই মেল-এর মারফৎ জানিয়েছেন যে শুক্রবার থেকেই কর্মী ছাঁটাইয়ের কাজ শুরু হবে। সেই ইমেলে লেখা হয়েছে, "টুইটারকে আরও উন্নত করতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হবে। শুক্রবার থেকে সেই কাজ শুরু হবে। যদিও এটি অত্যন্ত কঠিন একটি প্রক্রিয়া, তবু টুইটারের ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে এটি করতে হবে।" ট্যুইটারের দায়িত্ব পাওয়া মাত্র একের পর এক নিয়ম বদল করছেন এলন মাস্ক। ব্লু টিকের জন্য মাসে প্রায় আট ডলারের (প্রায় ৭০০ টাকা) নিদান দেওয়ার পর এবার কর্মী ছাঁটায়েই পথে হাঁটতে চলেছে ট্যুইটারের মালিক। কোম্পানি চালাতে ঠিক কত কর্মীর প্রয়োজন, সে বিষয়ে হিসেবনিকেষ করে ছাঁটাইয়ের পথে হাঁটছেন মাস্ক। জানা গিয়েছে, প্রায় ৩,৭০০ কর্মীকে ছাঁটাই করতে চলেছেন তিনি। কোম্পানি চালাতে ঠিক কত কর্মীর প্রয়োজন, সে বিষয়ে হিসেবনিকেষ করে ছাঁটাইয়ের পথে হাঁটছেন মাস্ক।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply