Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » » রোনালদোদের হারিয়ে দ্বিতীয় এশিয় হিসেবে নকআউটে কোরিয়া




দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে খেলতে নামার আগেই বিশ্বকাপের শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছিল পর্তুগাল। দক্ষিণ কোরিয়াকে হারালে এবারের বিশ্বকাপে প্রথম দল হিসাবে গ্রুপের তিন ম্যাচই জিততেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোরা। কিন্তু সেটা হলো না। অন্তত দু’বার গোল করার কাছে পৌঁছে গিয়েও গোল করতে পারলেন না রোনালদো। বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে পর পর দু’ম্যাচে খালি হাতেই ফিরতে হল তাকে। খেলা দেখে মনে হচ্ছিল ম্যাচটা ড্র হবে। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ে দক্ষিণ কোরিয়ার হয়ে জয়ের গোলটি করলেন হুয়াং হিচান। ২-১ গোলে পর্তুগালকে হারিয়ে কাতার বিশ্বকাপে এশিয়ার দ্বিতীয় দল হিসেবে শেষ ষোলোয় পৌঁছে গেল দক্ষিণ কোরিয়া। অন্যদিকে, হেরেও গ্রুপের শীর্ষে থেকে শেষ ষোলোয় গেলেন রোনালদোরা। ম্যাচের শুরুতেই অবশ্য আক্রমণের ঝড় তোলে পর্তুগাল। তার ফলও মেলে। মাত্র ৫ মিনিটে পর্তুগালকে এগিয়ে দেন রিকার্ডো হোর্তা। ডান প্রান্তে বল পেয়ে বক্সের মধ্যে ঢুকে ক্রস বাড়ান ডালট। ডান পায়ের শটে বল জালে জড়িয়ে দেন হোর্তা। গোল খাওয়ার পরে তা পরিশোধ করার জন্য আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়ায় দক্ষিণ কোরিয়া। সন হিউং মিনের নেতৃত্বে সামনে এগোতে থাকে তারা। কিছুটা চাপে পড়ে য়ায় পর্তুগাল। ২৭ মিনিটের মাথায় কর্নার থেকে গোল শোধ করেন দক্ষিণ কোরিয়ার কিম ইয়ং গুয়ান। বল রোনালদোর পিঠে লেগে গুয়ানের কাছে আসে। গোল করতে ভুল করেননি কোরিয় স্ট্রাইকার। ৩ মিনিট পরেই গোল করার সুযোগ এসেছিল রোনালদোর কাছেও। সামনে শুধু ছিলেন কোরিয়ার গোলরক্ষক। কিন্তু তাকে পরাস্ত করতে পারেননি সিআরসেভেন। প্রথমার্ধের বিরতির আগে আরও এক বার সুযোগ রান রোনালদো। ভিতিনহার ক্রসে বক্সের মধ্যে ফাঁকায় হেড করার সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বাইরে চলে যায় বল। দেখে বোঝা যাচ্ছিল, দিনটা তার নয়। দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণ-প্রতি আক্রমণের খেলা চলতে থাকে। দু’দলই গোল করার সুযোগ পাচ্ছিল। কিন্তু গোল করতে পারছিল না কেউই। ৬৮ মিনিটের মাথায় রোনালদোকে তুলে নেন কোচ। শেষ দিকে গোল করার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠেন সনরা। কারণ, জেতা ছাড়া পরের রাউন্ডে যাওয়ার কোনও সুযোগ ছিল না তাদের। ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে নিজেদের অর্ধ থেকে প্রতি আক্রমণে পর্তুগালের বক্সের কাছে পৌঁছে যান সন। নিজের নিয়ন্ত্রণে বল রাখার পরে তিনি বাড়ান হিচানের উদ্দেশে। পর্তুগালের গোলরক্ষককে পরাস্ত করে বল জালে জড়িয়ে দেন হিচান। সেখান থেকে আর ম্যাচে ফেরার কোনও সুযোগ ছিল না পর্তুগালের। শেষ পর্যন্ত হেরে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply