Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » মন্ত্রিপরিষদ সচিব হিসেবে কবির বিন আনোয়ারের দায়িত্ব গ্রহণ




খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম (বাঁয়ে) ও কবির বিন আনোয়ার। ছবি-সমকাল খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম (বাঁয়ে) ও কবির বিন আনোয়ার। ছবি-সমকাল মন্ত্রিপরিষদ সচিব হিসেবে বৃহস্পতিবার দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন কবির বিন আনোয়ার। এর আগে তিনি পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব হিসেবে ছিলেন। কবির বিন আনোয়ার বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের সপ্তম ব্যাচের একজন কর্মকর্তা। ১৯৮৮ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি সহকারী কমিশনার হিসেবে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসে যোগদান করেন। দীর্ঘ পেশাগত জীবনে তিনি একাধারে মাঠ প্রশাসন ও কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন পদে থেকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। মাঠ প্রশাসনের যেসব গুরুত্বপূর্ণ পদে তিনি কর্মরত ছিলেন তার মধ্যে সহকারী কমিশনার, সহকারী কমিশনার (ভূমি), উপজেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অন্যতম। এছাড়া তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সহকারী সচিব, নেদারল্যান্ডের হেগ-এ বাংলাদেশ অ্যাম্বাসির প্রথম সচিব, অর্থ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব এবং সরকারের অতিরিক্ত সচিব হিসেবে মহাপরিচালক (প্রশাসন) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় পদে কর্মরত ছিলেন। ২০১৮ সাল থেকে তিনি সরকারের সিনিয়র সচিব হিসেবে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব পালন করেছেন।  কবির বিন আনোয়ার দায়িত্ব গ্রহণের ফলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব পদ থেকে বিদায় নিলেন খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি ২০১৯ সালের ২৮ অক্টোবর সিভিল সার্ভিসের সর্বোচ্চ পদ মন্ত্রিপরিষদ সচিব হিসেবে নিযুক্ত হন। খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম ১৯৮২ (বিশেষ) ব্যাচের একজন কর্মকর্তা। তিনি ১৯৮৩ সালে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (প্রশাসন) ক্যাডারে যোগদানপূর্বক সুদীর্ঘ ৩৯ বছর সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত থেকে আজ সরকারি চাকুরি হতে অবসর গ্রহণ করেন। বর্ণাঢ্য চাকরি জীবনে তিনি কেন্দ্রীয় এবং মাঠপ্রশাসনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন। বিশ্বব্যাংক, ইউএনএফপিএ, এডিবি, সিআইডিএ, ডিজিআইএস, 'ইউএনভিপি'র অর্থায়নে পরিচালিত বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পে তিনি উপ-পরিচালক, উপ-প্রকল্প পরিচালক, প্রকল্প পরিচালক এবং জাতীয় প্রকল্প পরিচালক হিসেবে কাজ করেন। বিশেষ করে সেতু বিভাগের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে বাংলাদেশের অন্যতম চ্যালেঞ্জিং দু'টি মেগা প্রকল্প: পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণ প্রকল্প এবং কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ প্রকল্পের বাস্তবায়নে তিনি অসাধারণ দক্ষতার স্বাক্ষর রাখেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply