Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » এ বছরও শেষ হচ্ছে না ইউক্রেন যুদ্ধ: জেনারেল মার্ক মিলি




এ বছরও শেষ হচ্ছে না ইউক্রেন যুদ্ধ। এমনটাই ইঙ্গিত দিয়েছেন মার্কিন সশস্ত্র বাহিনীর জয়েন্ট চিফ অব স্টাফের চেয়ারম্যান জেনারেল মার্ক মিলি। তিনি বলেছেন, সামরিক দৃষ্টিকোন থেকে বিবেচনা করলে, এ বছরও ইউক্রেন থেকে রুশ আক্রমণকারীদের তাড়িয়ে দেয়া অনেক কঠিন ব্যাপার। শনিবার (২১ জানুয়ারি) জার্মানিতে অবস্থিত মার্কিন বিমানঘাঁটি র‌্যামস্টেইনে ন্যাটো জোটের বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের সামনে এ মন্তব্য করেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুসারে, র‌্যামস্টেইনে অনুষ্ঠিত বৈঠকে ন্যাটোর কর্মকর্তারা ছাড়াও সদস্যসহ মোট ৫০টি দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রীরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে ন্যাটো জোটের পক্ষ থেকে ইউক্রেনকে আরও অস্ত্র সহায়তা দেয়ার বিষয়ে আলোচনা করা হয়। বিভিন্ন প্রকারের অস্ত্র সরবরাহের বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছাতে পারলেও জোটটি ইউক্রেনকে বহুল কাঙ্ক্ষিত লোপার্ড-২ সিরিজের ট্যাংক সরবরাহ করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। কেবল তাই নয়, জার্মানির পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রও ইউক্রেনকে আব্রামস ট্যাংক সরবরাহ না করার বিষয়ে অটল রয়েছে। মার্কিন কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে অদূর ভবিষ্যতে আব্রামস ট্যাংক সরবরাহ করা হবে কিনা এই বিষয়ে কোনো বিস্তারিত তথ্য দেননি তারা। আরও পড়ুন: ঐকমত্যে পৌঁছাতে ব্যর্থ ন্যাটো, লোপার্ড ট্যাঙ্ক পাচ্ছে না ইউক্রেন এদিকে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে জেনারেল মার্ক মিলি বলেছেন, ‘সামরিক দৃষ্টিকোণ থেকে আমি এখনও মনে করি যে, এ বছরও রুশ অধিকৃত ইউক্রেনের প্রতিটি ইঞ্চি থেকে রাশিয়ার সেনাদের যুদ্ধের মাধ্যমে বের করে দেওয়া খুব, খুব কঠিন হবে।’ ফলে বিশ্লেষকরা আশঙ্কা করছেন, এ বছরও যুদ্ধ শেষ হচ্ছে না। অপরদিকে একই বৈঠকে শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী অস্টিন লয়েড বলেছিলেন, ‘কিয়েভ এবং বিশ্ব একটি সিদ্ধান্তমূলক মুহূর্তের সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে আছে। এ অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনকে ততক্ষণ পর্যন্ত সহায়তা দিয়ে যাবে যতক্ষণ পর্যন্ত তা প্রয়োজন।’ মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এখন আমরা জানি যে, রাশিয়ার আগ্রাসন ক্রমেই বিজয়ের দিকে ঝুঁকছে। রাশিয়ার সেনারা তাদের ভয়ংকর আক্রমণ বাড়িয়েছে এবং অনেক নিরীহ ইউক্রেনীয়কে হত্যা করেছে। আমরা কয়েক দিন আগেও নিপ্রো শহরে আবারও রাশিয়ার নিষ্ঠুরতা দেখেছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘যেহেতু রাশিয়ার নিজেদের পুনর্গঠন করছে, এখনই উপযুক্ত সময় আরও গভীরে যাওয়ার।’






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply