Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

সাম্প্রতিক খবর


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

mujib

w

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » সৌদি আরব হঠাৎ কেন মদের দোকান খুলছে?




সৌদি আরবে মদের দোকান খুলছে, সে খবর এরইমধ্যে জেনেছে বিশ্ববাসী। ৭০ বছরের বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো মদের দোকান খোলা হচ্ছে মুসলিম বিশ্বের অন্যতম পরাক্রমশালী এ দেশটিতে। রাজধানী রিয়াদের কেন্দ্রস্থলের কাছে শুধুমাত্র বিদেশি কূটনীতিকদের জন্য হবে এই অ্যালকোহল শপ। কিন্তু হঠাৎ কেন এমন উদ্যোগ সৌদির? রিয়াদের একটি পপ-আপ বারে অ্যালকোহলমুক্ত ককটেল তৈরি করছেন একজন বার টেন্ডার। তবে রাজধানী শহরটিতে শিগগিরই মদের দোকান চালু হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত রিয়াদের একটি পপ-আপ বারে অ্যালকোহলমুক্ত ককটেল তৈরি করছেন একজন বার টেন্ডার। তবে রাজধানী শহরটিতে শিগগিরই মদের দোকান চালু হচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত তেলের ওপর নির্ভরতা কমিয়ে পর্যটননির্ভর সৌদি আরব গড়ে তুলতে ভিশন ২০৩০ প্রকল্প হাতে নিয়েছে রিয়াদ, যার অন্যতম কারিগর যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। এই প্রকল্পের আওতায় সৌদি আরবকে বিদেশিদের কাছে আকর্ষণীয় করে তুলতে গত কয়েক বছরে বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে দেশটি। এবার মদের দোকান চালু হচ্ছে মুসলিম বিশ্বের অন্যতম পরাক্রমশালী দেশটিতে। বিবিসিসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো বলছে, ৭০ বছরের বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো মদের দোকান খোলা হচ্ছে সৌদি আরবে। যার ক্রেতা হবেন কেবল বিদেশি কূটনীতিকরা। আরও পড়ুন: সৌদি আরবে প্রথমবারের মতো খুলছে মদের দোকান আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই রাজধানী রিয়াদের কেন্দ্রস্থলের কাছে কূটনীতিক পাড়ায় হবে এই মদের দোকান। এরইমধ্যে আইন সংশোধনের প্রস্তুতি নিচ্ছে সৌদি সরকার। বর্তমান আইন অনুযায়ী, মদ পান করলে কঠোর শাস্তির বিধান রয়েছে দেশটিতে। জানা গেছে, মদের দোকান চালু হলেও সেটা চলবে কঠোর নিয়মের মধ্য দিয়ে। স্থানীয়রা সেখানে যেতে পারবেন না। এমনকি বিদেশি কূটনীতিক যারা আগ্রহ প্রকাশ করবেন, তাদেরকে আগেই একটি মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে হবে। কূটনীতিক বাদে অন্য বিদেশিরা এই পানশালায় যেতে পারবেন না। এমনকি ভেতরে মেনে চলতে হবে পোশাক বিধি। ড্রাইভার বা অন্য কাউক পাঠিয়ে সেখান থেকে মদ কেনা যাবে না। একজন কতটুকু মদ কিনতে পারবেন, তার মাসিক কোটাও নির্ধারণ করে দেয়া হবে। আরও পড়ুন: মসজিদে নববীতে এক বছরে নামাজ আদায় করেছেন ২৮ কোটি মুসল্লি প্রসঙ্গত, বাদশাহ আবদুল আজিজের ছেলের গুলিতে এক ব্রিটিশ কূটনীতিক মারা যাওয়ার পর ১৯৫২ সালে আইন করে মদ বিক্রি নিষিদ্ধ করেছিল সৌদি আরব।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply