Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

সাম্প্রতিক খবর


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

mujib

w

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » নিজ সন্তানকে হত্যাকারী নারীকে যেভাবে ধরল পুলিশ




ভারতের গোয়ায় বেড়াতে গিয়ে নিজের চার বছর বয়সী ছেলেকে হত্যা করেছেন এক মা। হত্যার পর ছেলের ‍মৃতদেহ একটি ব্যাগে করে নিয়ে বেঙ্গালুরুতে ফিরছিলেন তিনি। এর মধ্যেই বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। ছেলের সঙ্গে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স স্টার্টআপ ‘মাইন্ডফুল এআই ল্যাব’র সিইও সূচনা শেঠ। ফাইল ছবি (সংগৃহীত) ছ মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গ্রেফতার ওই নারীর নাম সূচনা শেঠ। তিনি বেঙ্গালুরু-ভিত্তিক আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স স্টার্টআপ ‘মাইন্ডফুল এআই ল্যাব’ এর সিইও। সোমবার (৮ জানুয়ারি) সকালে উত্তর গোয়ার ক্যান্ডোলিমের একটি হোটেলের অন্তর্গত সার্ভিস অ্যাপার্টমেন্ট থেকে চেকআউট করেন সূচনা। হোটেল থেকেই ঠিক করে দেয়া স্থানীয় একটি ট্যাক্সিতে চড়ে তিনি বেঙ্গালুরু রওনা দেন। কিন্তু তিনি বেরিয়ে যাওয়ার পর তার রুম পরিষ্কার করতে গিয়ে মেঝেতে রক্তের দাগ দেখতে পান হোটেলের কর্মীরা। বিষয়টি তারা হোটেল কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে পুলিশকে জানান। ঘটনাস্থলে আসার পর হোটেল কর্তৃপক্ষ পুলিশকে জানায়, সূচনা সকালেই বেঙ্গালুরু ফেরার কথা জানান। হোটেল থেকে তাকে বিমানের টিকিট করে দেয়ার কথা বলা হয়। কিন্তু হোটেলের ম্যানেজারের দাবি, সূচনা ট্যাক্সি করেই বেঙ্গালুরু ফিরতে চান। পরে তাকে একটি ট্যাক্সি ভাড়া করে দেয়া হয়। ব্যাগপত্র নিয়ে বেঙ্গালুরুর উদ্দেশ্যে রওনা দেন সূচনা। আরও পড়ুন: মেট্রো স্টেশন থেকে ঝাপ দিলেন বাবা, মায়ের লাশের পাশে কাঁদছিল শিশু পুরো ঘটনা শোনার পর তদন্তে নামে পুলিশ। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, সূচনা যখন হোটেল ছাড়ছিলেন তখন সঙ্গে তার ছেলে ছিল না। এরপর পুলিশ সূচনাকে ফোন করে ছেলের কথা জানতে চাইলে সূচনা জানান, ফতোরদায় তার এক বন্ধুর বাড়িতে ছেলেকে রেখে তিনি জরুরি কাজে বেঙ্গালুরু ফিরছেন। বন্ধুর নাম, ঠিকানাও পুলিশকে দেন সূচনা। কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখা যায়, পুরোটাই ভুয়া। সেখানে ওই নামে কেউ থাকেনই না। এরপর পুলিশ যোগাযোগ করে সূচনার ট্যাক্সির চালকের সঙ্গে। তাকে পুরো ঘটনা পুলিশ জানায়। স্থানীয় কোঙ্কনি ভাষায় চালক পুলিশকে জানান, তিনি কর্নাটকের চিত্রদূর্গা জেলায় প্রবেশ করেছেন। নিকটবর্তী থানায় যেন গোয়া পুলিশ কথা বলে রাখে, তিনি সূচনাকে নিয়ে সেখানেই পৌঁছাচ্ছেন। সূচনাকে টের পেতে না দিয়ে চালক সোজা আইমঙ্গলা থানায় গাড়ি নিয়ে চলে যান। আরও পড়ুন: তিন সন্তান নিয়ে ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে প্রাণ দিলেন বাবা সেখানে যাওয়ার পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে কোনো তথ্যই জাননানি সূচনা। পরে তার ব্যাগ তল্লাশি করা হয়। ব্যাগ খুলতেই এর ভেতর তার চার বছরের ছেলের রক্তাক্ত মরদেহ দেখা যায়। এরপরই পুলিশ সূচনাকে গ্রেফতার করে। তবে কী কারণে তিনি নিজ সন্তানকে খুন করলেন, তা এখনও স্পষ্ট না






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply