Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

সাম্প্রতিক খবর


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

mujib

w

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » আমেরিকা ও যুক্তরাজ্য নির্বাচনের প্রশংসা করেছে, দাবি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর




দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে বিশ্বের সব দেশই প্রশংসা করেছে বলে দাবি করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্যসহ পশ্চিমারা বাংলাদেশের নির্বাচনের প্রশংসা করেছেন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন। ছবি সময় সংবাদ মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) বিকালে রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে দেশি-বিদেশি কূটনীতিকদের ব্রিফ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ দাবি জানান। আমেরিকা ও যুক্তরাজ্য এবারের নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তারা ভালো বলেছে, নির্বাচনের প্রশংসা করেছে। তারা বলেছে আমাদের সঙ্গে যে সম্পর্ক আছে, সেটা বলবৎ রাখবে। তবে তারা মানবাধিকারের যে বিষয়টির কথা বলেছে, সেটা ডায়নামিক ইস্যু। এগুলোর কোনো শেষ নেই। আমরা এসব বিষয় নিয়ে কাজ করছি।’ পশ্চিমারা বলেছে নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হয়নি, জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘না, না, গ্রহণযোগ্য হয়েছে বলেছে।’ আরও পড়ুন: নির্বাচন নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ব্রিফিংয়ে পিটার হাস সাত জানুয়ারির নির্বাচনের সবাই প্রশংসা করেছে দাবি করে আব্দুল মোমেন, সব দেশই আমাদের ভালো বলেছে। বলেছে সুষ্ঠু, সুন্দর নির্বাচন হয়েছে। এটা বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন ছিল। ‘তারা বলেছে নির্বাচনের আগে কিছু সংঘাত হয়েছে। কিন্তু নির্বাচন স্বচ্ছ ও সুষ্ঠু হয়েছে। তবে কোনো কারিগরি ত্রুটি ছিল কিনা, বিদেশি পর্যবেক্ষকরা তা দেখেছেন। আমি বাংলাদেশের বহু নির্বাচন দেখেছি। আমার মনে হয়, এবারের নির্বাচনটি আদর্শ নির্বাচন হয়েছে’ যোগ করেন তিনি। আরও পড়ুন: বাংলাদেশ ও আওয়ামী লীগকে চীনের অভিনন্দন এদিকে নির্বাচন বিষয়ে কূটনীতিকদের ব্রিফিংয়ে অংশীদারিত্ব ও সহযোগিতামূলক আচরণ আশা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, নতুন বছরে আমরা খুবই সুন্দর একটি বাংলাদেশের প্রত্যাশা করছি। সব দেশগুলোর সঙ্গে ভালো সহযোগিতা ও অংশীদারিত্ব প্রত্যাশা করছি। এই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে আমরা নিজস্ব লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবো। একটি ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে পারবো। অংশীদারিত্ব ও সহযোগিতামূলক সম্পর্ক ছাড়া আমরা এগুলো অর্জন করতে পারবো না।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply