Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

সাম্প্রতিক খবর


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

mujib

w

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » মস্কোয় হামলা ৪ জনের বিরুদ্ধে ‘সন্ত্রাসবাদের’ অভিযোগ আনল রাশিয়া




মস্কোয় হামলা ৪ জনের বিরুদ্ধে ‘সন্ত্রাসবাদের’ অভিযোগ আনল রাশিয়া মস্কোর একটি কনসার্ট হলে বন্দুকধারীদের হামলার ঘটনায় আটক চারজনের বিরুদ্ধে ‘সন্ত্রাসী’ কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার আনুষ্ঠানিক অভিযোগ এনেছে রাশিয়া। শুক্রবারের (২২ মার্চ) ওই হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩৭ জনে। খবর বিবিসির। ক্রোকাস সিটি হলের কনসার্টে হামলার ঘটনায় আটকদের চোখ বেঁধে মস্কোর একটি আদালতে তোলা হয়। ছবি: রয়টার্স অভিযুক্ত চারজন হলেন-দালেরদজন মিরজোয়েভ, সাইদাকরামি মুরোদালি রাচাবালিজোদা, সামসিদিন ফারিদুনি এবং মোহাম্মদসোবির ফায়জোভ। রোববার (২৪ মার্চ) তাদের মস্কোর একটি আদালতে তোলা হয়। এরমধ্যে দুজনের ছবিও প্রকাশ করা হয়েছে। বার্তাসংস্থা এএফপি বলছে, ছবি প্রকাশ করা দুজনের একজন মিরজোয়েভ তাজিকিস্তানের নাগরিক। আর অন্যজন রাচাবালিজোদার জাতীয়তা সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। ফারিদুনি ও ফায়জোভের জাতীয়তা সম্পর্কেও জানা যায়নি।

আরও পড়ুন: রাশিয়ায় হামলার নেপথ্যে আইএস নাকি অন্য কেউ? রুশ সংবাদমাধ্যম আরটি বলছে, রক ব্যান্ড ‘পিকনিক’র একটি কনসার্টের ঠিক আগে ২২ মার্চ সন্ধ্যায় একদল বন্দুকধারী ক্রোকাস সিটি হলে হামলা চালায়। আনুমানিক সাড়ে সাত হাজার মানুষের ধারণক্ষমতার ভেন্যুটি প্রায় পূর্ণ ছিল। সন্ত্রাসীরা প্রথমে নিরাপত্তারক্ষীদের হত্যা করে, এরপর দর্শনার্থীদের ওপর গুলি চালায় এবং তারপরে আগুন দিতে শুরু করে, যা দ্রুত ভবনের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। তদন্তকারীদের মতে, নিহতদের মধ্যে তিন শিশু রয়েছে এবং এখন পর্যন্ত মোট ৬২টি মৃতদেহ শনাক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নৃশংস এ ঘটনায় দুই শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। আরও পড়ুন: রাশিয়ায় সন্ত্রাসী হামলা: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৭ গত দুই দশকের মধ্যে রাশিয়ায় সবচেয়ে প্রাণঘাতী হামলা এটি। এ ঘটনাকে ‘রক্তাক্ত সন্ত্রাসী হামলা’ বলে উল্লেখ করে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। হামলার পরপরই এর দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)। তবে রুশ কর্তৃপক্ষ মস্কোর কনসার্ট হলে হামলার পেছনে ইউক্রেনের সম্পৃক্ততা রয়েছে বলে দাবি করেছে। যদিও কোনো তথ্য–প্রমাণ উপস্থাপন করা হয়নি। মস্কোর এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইউক্রেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply