sponsor

sponsor

Slider

আন্তর্জাতিক

জাতীয়

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

Facebook Like Box

» » » ৩৬টি ফুটওভার ব্রিজ করেছি, ৩০টিও ব্যবহার হয় না: কাদের




প্রতিযোগিতামূলক বাস চলাচলের পাশাপাশি পথচারীদের বেপরোয়া রাস্তা পারাপার বন্ধ করতে হবে। পাশে ফুটওভার ব্রিজ কিন্তু ব্যবহার করা হয় না। ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে ৩৬টি ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করেছি। কিন্তু ফুটওভার ব্রিজগুলোর মধ্যে ৩০টিও ব্যবহার হয় না। বললেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
রোববার রাজধানীর কুর্মিটোলায় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজ (এসআরসিসি) প্রাঙ্গণে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, পাশে ফুটওভার ব্রিজ কিন্তু মানুষ ব্যবহার করবে না। হামাগুড়ি দিয়ে ডিভাইডারের গ্যাপের মধ্য দিয়ে রাস্তা পার হবে। স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে রাস্তার এপার থেকে ওপার যাচ্ছে। ছুটন্ত গাড়ি এসে তাকে চাপা দিচ্ছে। ফলে নৃশংস মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। আমি অনুরোধ করবো, প্লিজ রাস্তা পারাপার তোমরা সর্তক হবে। 

তিনি বলেন, আগামী দুই তিন বছরের মধ্যে বাংলাদেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা বৈপ্লবিক পরিবর্তন দৃশ্যমান আসবে। একটু ধৈর্য ধরতে হবে। অপেক্ষা করতে হবে। অপেক্ষা করুন সুদিনের জন্য।
শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে কাদের বলেন, শেখ হাসিনা আগামী নির্বাচনের প্রধানমন্ত্রী নন, তিনি আগামী জেনারেশনের প্রধানমন্ত্রী। আমি তোমাদের ধন্যবাদ জানাই। তোমরা প্রমাণ করেছো সবার জন্য বাংলাদেশে একজন অভিভাবক আছে। যার কথায় তোমরা আন্দোলন থেকে বাড়ি ফিরেছো, ক্লাসে ফিরেছো। তোমরা ৯টি দাবি দিয়েছ। তিনি কথা দিয়েছেন। তোমাদের দাবিগুলো মেনে নিয়েছেন। আমরা সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয় আশস্ত করছি তার দাবিগুলো অক্ষরে অক্ষরে পালন করা হবে।

তিনি বলেন, শুধু শহীদ রমিজ উদ্দিন আন্ডারপাস কলেজ নয়। নেত্রী আমাকে নির্দেশ দিয়েছেন আরও তিনটি আন্ডারপাস অচিরেই নির্মাণ করার জন্য। একটি হচ্ছে ঢাকা বিমানবন্দর রেল স্টেশন থেকে ঢাকা বিমানবন্দর। আমরা প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছি। আরেকটি হবে সংসদ সদস্য ভবন থেকে সংসদ ভবন পর্যন্ত।
তিনি বলেন, বর্তমান দেশে বিশটি ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলছে। বাস র‌্যাপিড ট্রানজিটের আওতায় গাজীপুর তেকে জসীম উদ্দিন পর্যন্ত সড়কে ৫টি ফ্লাইওভার হবে।
তিনি আরও বলেন, ঈদের আগে ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়কের ২৩টি ব্রিজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করবেন। আমরা জনসাধারণের জন্য খুলে দিব। টঙ্গী বাজার পুরোপুরি এলিভেটেড এক্সপ্রেস হবে। আব্দুল্লাহপুর থেকে ইপিজেড পর্যন্ত এলিভেটেড এক্সপ্রেসের কাজ চলছে।

«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply