sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » অস্ট্রেলিয়ায় দাবানলে ৩’শ কোটি প্রাণীর মৃত্যু!





অস্ট্রেলিয়ায় দাবানলে ৩’শ কোটি প্রাণীর মৃত্যু!
গেল বছর অস্ট্রেলিয়ায় স্মরণকালের ভয়াবহ দাবানলে দেশটির প্রায় ৩’শ কোটি বণ্যপ্রাণীর মৃত্যু কিংবা বাস্তুচ্যুত হয়েছে জানিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিজ্ঞানীরা। একে আধুনিক সভ্যতার ইতিহাসে বিপর্যয় বলে ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ফান্ড ফর ন্যাচার- (ডব্লিউডব্লিউএফ’র) এক প্রকাশিত প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

গত বছর ২০১৯-এ অস্ট্রেলিয়ায় দাবানলের থাবায় কমপক্ষে ৩৩ জনের মৃত্যু হয়। একই সময় স্তন্যপায়ী প্রাণী, সরীসৃপ, পাখি এবং ব্যাঙ আগুনের শিখায় বা বাসস্থানের ক্ষতিতে মারা যায়। ভয়াবহ দাবানলের দগ্ধ হওয়ার কারণে নিউ সাউথ ওয়েলেসের বিলুপ্ত প্রজাতির প্রাণী কোয়ালা হুমকির মুখে। আগামী ২০৫০ সালের মধ্যে পৃথিবী থেকে এই প্রাণীটির হারিয়ে যাওয়ার আভাস রয়েছে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, গত জানুয়ারিতে সংকটের ‘পিক’ সময়ে শুধু তাসমানিয়া ও ভিক্টোরিয়া রাজ্যেই অন্তত ১২৫ কোটি প্রাণী মারা যায়। নতুন হিসাবে বেরিয়ে এসেছে আরেকটি তথ্য। সেপ্টেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পুরেছে প্রায় ১১ দশমিক ৪ কোটি হেক্টর বনভূমি। যা কিনা প্রায় ইংল্যান্ডের সমান।

অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০ বিজ্ঞানীর করা এই প্রকল্পের তত্ত্বাবধানকারী অধ্যাপক ক্রিস ডিকম্যান বলেন, ‘যখন আপনি কল্পনা করবেন যে আপনার স্থানীয় ৩০০ কোটি প্রাণী আগুনের শিকার হয়েছে, এটা আসলে এটা মেনে নেয়া খুবই কঠিন।’

ডিকম্যান আরও জানান, মৃত্যুর সঠিক সংখ্যাটি এখনো তারা বের করতে পারেননি। কিন্তু ধারণা করছেন আগুনের লেলিহান শিখা থেকে পালিয়ে এসে বেঁচে থাকার সংখ্যাটি খুবই কম, কেননা এখানে তাদের সামনে বাধা হিসেবে ছিল খাদ্য ও আশ্রয়ের সংকট।

পরিসংখ্যান:
গবেষণা দেখা বেরিয়ে এসেছে, মারা গেছে কিংবা বাস্তুচ্যুত হয়েছে:

২৪৬ কোটি সরীসৃপ
১৮ কোটি পাখি
১৪ কোটি ৩০ লাখ স্তন্যপায়ী প্রাণী এবং
৫ কোটি ১০ লাখ ব্যাঙ।

পর্যাপ্ত তথ্যের অভাবে প্রাণী, মাছ ও কচ্ছপ এই হিসাবের তালিকায় আসেনি।

গত ফেব্রুয়ারিতে অস্ট্রেলিয়ান সরকার চিহ্নিত করে জানায়, দাবানলের পর অন্তত ১১ কোটি ৩০ লাখ প্রাণীর জরুরি সাহায্য প্রয়োজন। এসবের মধ্যে ছিল বিলুপ্ত প্রজাতির কোয়ালা, ওয়ালাবী, পাখি, মাছ ও ব্যাঙ জাতীয় নানা প্রাণীকূল। ওই তালিকার অন্তত ৩০ শতাংশই প্রচণ্ড তাপের কারণে দক্ষিণ ও পূর্ব অস্ট্রেলিয়ার বনে বাসস্থান হারিয়েছে।

কি পরিকল্পনা নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া সরকার:

ইতোমধ্যে বণ্যপ্রাণী ও তাদের বাসস্থান পুনরুদ্ধারের কাজে ২ কোটি ৭০ লাখ ডলার বাজেট ঘোষণা করেছে অস্ট্রেলীয় সরকার। যদিও পরিবেশবাদীরা বলছেন, সরকার যেন সংরক্ষণ আইনটা আরো শক্তিশালীর পাশাপাশি কঠোরও করে।

বিজ্ঞানীরা কি বলছে:

২০১৯-এর অক্টোবরে শুরু হওয়া দাবানলের কারণ অনুসন্ধান করছে রয়্যাল কমিশন। দাবানল এতটাই নজিরবিহীন আর নির্মমতা ছিল যা মূলত জলবায়ু পরিবর্তনেরই ফল বলে দাবি করছেন বিজ্ঞানীরা।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply