sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » নানা নাটকীয়তায় মেসি




নানা নাটকীয়তায় মেসি

লিওনেল মেসির দল-বদল ঘটনায় নাড়া পড়ে ছিল গোটা ফুটবল দুনিয়ায়। বায়ার্ন মিউনিখের কাছে বার্সেলোনার লজ্জার হারের পর ব্যুরো ফ্যাক্সে ন্যু ক্যাম্প ছড়ার সিদ্ধান্ত জানান মেসি। এরপর ম্যানচেস্টার সিটিতে যাওয়ার গুঞ্জন, মেসির বাবার কাতালান কর্তৃপক্ষের সাথে বৈঠক। নানা ঘটনার পর বার্সেলোনায় থাকার সিদ্ধান্ত মেসির। গেলো ২০ দিনের এই নাটকীয় গল্পের বিস্তারিত- একটা ম্যাচ হয়তো ক্লাব বার্সেলোনাকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ছিটকে দিয়েছে। তবে পরোক্ষভাবে নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা ফুটবল দুনিয়াকে। কারণটাও নিশ্চয়ই কারো অজানা নয় এখন। ফুটবলের খুদে জাদুকর লিওনেল মেসির প্রিয় ক্লাব বার্সেলোনা ছাড়া না ছাড়ার খবরে জল ঘোলা হয়েছে অনেক। শেষ পর্যন্ত ক্লাবের প্রতি ভালবাসা দেখিয়ে ন্যু ক্যাম্পেই থেকে যাচ্ছেন লিও। তবে ১৫ আগস্ট থেকে ৪ সেপ্টেম্বর। এই ২০ দিন রাত-দিন এক করে দিয়ে মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার কারণ খুঁজেছে। সত্যি কি মেসি ছেড়ে যাচ্ছেন শৈশব, কৈশোর আর যৌবনের সুন্দর সময়গুলো রেখে। হঠাৎ গণমাধ্যমে গুঞ্জন ওঠে ব্যুরোফ্যাক্সে কাতালনিয়া ছাড়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছে। মূলত এরপর থেকে নড়চড়ে বসে বিশ্ব ফুটবল। আলোচনা উঠে মেসির ক্লাব ছাড়ার সুযোগ আছে কিনা। ৭০০ মিলিয়ন রিলিজ ফি দিয়ে কি অন্য ক্লাব এই তারকাকে নিয়ে যাবে তো? এরই মধ্যে ফিফার কাছ থেকে ক্লাব পরিবর্তনের অনুমতি চেয়ে নেয় মেসি। ফুটবল অঙ্গনে চাউর হয় সাবেক গুরু পেপ গার্দিওলা মেসিকে পেতে উঠে পড়ে লেগেছে। সময়ের সাথে সাথে জোরালো হয়েছে গুঞ্জন। অনেকটা নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল মেসির ম্যানচেস্টার সিটিতে যাওয়া। যার জন্য ৭০০ মিলিয়ন রিলিজ ফি দিতেও প্রস্তুত ছিল ইংলিশ ক্লাবটি। মেসির ঘটনা নিয়ে সভায় বসে লা লিগা কর্তৃপক্ষ। ট্রান্সফার উইন্ডোর পর এই আর্জেন্টাইন কিভাবে দল বদল করতে পারেন। পরে দীর্ঘ আলোচনার পর জানিয়ে দেয়া হয় মেসিকে অন্য ক্লাবে যেতে হলে ৭০০ মিলিয়ন দিয়েই যেতে হবে। এদিকে, ক্লাব বার্সেলোনায় মেসির না থাকার ব্যাপারটি জোরালো ভাবে আসে গণমাধ্যমে। ভক্ত সমর্থকরা আন্দোলনে নামেন। মেসিকে ন্যু ক্যাম্পে রাখতে দিন রাত এক করে দিয়ে ক্লাবের সামনে অবস্থান নেয় হাজারো ভক্ত। গণমাধ্যম কর্মীদের ব্যস্ততা বাড়ে ক্লাব বার্সেলোনা, ন্যু-ক্যাম্প থেকে মেসির বাড়ির সামনে। মেসির দল বদল নিয়ে কথা বলতে তার এজেন্ট বাবা হোর্হে মেসি আসেন স্পেনে। ক্লাব কর্তাদের সাথে লম্বা আলোচনা করেন তিনি। অনেকটা বৃথা আলোচনা শেষে ফেরেন মেসির বাবা। যাওয়ার সুযোগ থাকছে না লিওনেল মেসির। তবে একটা পথ খোলা ছিল। ক্লাব পরিবর্তনের বিষয় নিয়ে আদালতের শরণাপন্ন হতে পারতেন পাঁচবারের ব্যালন ডি'অ্যার জয়ী। এতে হয়তো ক্লাব ছাড়ার পথ মিলতো। কিন্তু প্রিয় ক্লাবকে আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে চাননি মেসি। তাই একটা বছর নিজের অনিচ্ছা সত্ত্বেও থেকে যাওয়ার ঘোষণা দেন বার্সেলোনায়। এখন দেখার পালা এই এক বছরে বার্সেলোনায় কি ভূমিকায় থাকেন সুপারস্টার।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply