sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » মেসিকে কিনতে চেয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদও!




মেসিকে কিনতে চেয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদও!

গেল এক যুগে বার্সেলোনার জার্সিটাকে নতুন রং দিয়েছেন লিওনেল মেসি। আর্জেন্টাইন মহাতারকার জন্যও ক্লাবটা পেয়েছে অন্য মাত্রা। আবার বার্সা অন্তঃপ্রাণ মেসিও। এই এক যুগে বার্সা আর মেসিকে আলাদা করে ভাবাও যে মুশকিল! তাই তো ইউরোপের শীর্ষ অনেক ক্লাবই হাত বাড়িয়েও পায়নি এলএমটেনকে। সেসব তো জানা কথাই। কিন্তু লিওনেল মেসিকে কিনতে চেয়েছিল বার্সার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদও, এমন খবর দিয়ে আবারো সাড়া ফেলে দিয়েছেন ইতালিয়ান এক সাংবাদিক। রিয়ালের সাদা জার্সিতে আর্জেন্টাইন মহাতারকাকে দেখা কল্পনারও অতীত। তবে সেই স্বপ্ন ও পরিকল্পনা দুটোই করেছিলেন ক্লাবটির মালিক ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ। ২০১৩ সালে মেসিকে কিনতে উঠেপড়ে লেগেছিলেন তিনি। ইতালিয়ান সাংবাদিক জিয়ানলুকা ডি মারজিও লিখেছেন, রিয়াল মাদ্রিদের সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ ২০১৩ সালে মেসিকে কিনতে ২৫০ মিলিয়ন ইউরো অফার করেছিলেন। এই অর্থ তারা রেখেছিল মূলত নিজেদের স্টেডিয়াম সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর সংস্কারের জন্য। কিন্তু মেসিকে কিনতে পুরো অর্থই ঢালতে চেয়েছিল তারা। তবে মেসি সরাসরিই তাদের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন বলেও দাবি করেন ওই ইতালিয়ান সাংবাদিক। তিনি লিখেছেন, মেসির উত্তরটা ছিল এমন, আমি রিয়াল মাদ্রিদে যাচ্ছিনা। তোমরা শুধু শুধু সময়ের অপচয় করছো। ২০১৮ সালেই অবশ্য এ বিষয়ে গুঞ্জন উঠেছিল। ডি মারজিও সেই গুঞ্জনে আবারো ঘি ঢাললেন। কেবল রিয়াল মাদ্রিদই নয়, গেল এক দশকে মেসিকে কিনতে হাত বাড়িয়েছিল অসংখ্য ক্লাব। ইন্টার মিলানের সভাপতি মাসিমো মোরাত্তি বলেছিলেন, লিওকে দলে ভেড়ানো হচ্ছে তার স্বপ্ন। যদিও সেই স্বপ্ন দিবাস্বপ্নই থেকে গেছে, বাস্তবায়িত হয়নি। একইভাবে চেলসি, প্যারিস সেইন্ট জার্মেই এবং ম্যানচেস্টার সিটি বেশ কয়েক দফা আর্জেন্টাইন তারকাকে কিনতে চেয়েও সফল হয়নি। ক্লাবের প্রতি লিওনেল মেসির ভালোবাসার নজির এসব। যদিও সেই ভালোবাসা ফুরিয়েছে গেল মৌসুমে। চলতি মৌসুমে ক্লাব ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন ক্ষুদে জাদুকর। চুক্তির বেড়াজালে যদিও সেটি আর হয়নি। তবে আগামী মৌসুমেই তিনি প্রিয় ক্লাব ছাড়তে পারেন বলে গুঞ্জন ইউরোপিয়ান ফুটবল বাজারে। সেই গুঞ্জন সত্যি হয় কিনা কে জানে!






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply