sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » বছর শেষে ক্ষতির পাল্লা ভারি বলিউডের




বছর শেষে ক্ষতির পাল্লা ভারি বলিউডের বলিউডের অভিশপ্ত বছর ২০২০। বছর শেষে বলিপাড়ার হিসেব নিয়ে ব্যস্ত সবাই। বিগ বাজেটের একাধিক সিনেমা মুক্তি দিয়ে ২০১৯ সালে বছর জুড়ে আলোচনায় ছিল বলিউড। কিন্তু করোনার কারণে ২০২০ সালে সে আলোচনার ধারাবাহিকতা বজায় থাকেনি। শুরুটা ভালোই হয়েছিল: ১০ জানুয়ারি মুক্তি পেয়েছিল ‘তানহাজি: দ্য আনসাং ওয়ারিয়র’। ১২৫ কোটি ভারতীয় রুপি ব্যয়ে নির্মিত সিনেমাটি আয় করেছেন ৩৬৭ কোটি রুপি। মার্চে মুক্তি পাওয়া ‘বাঘি-৩’ সিনেমাটির আয় ছাড়িয়েছিল ১০০ কোটির ঘর। তারপর মুক্তি পেয়েছে মোট ৯৮টি সিনেমা। কিন্তু শতকোটির ঘর পার হতে পারেনি একটিও। ক্ষতির পরিমাণ আকাশছোঁয়া: মূলত করোনা ভাইরাসের প্রকোপে নিম্নমুখী হতে থাকে বলিউডের ব্যবসা। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০২০ সালে বলিউডের ক্ষতির পরিমাণ আকাশছোঁয়া। টাকার অংকে ক্ষতির পরিমাণ ৩৫০০ কোটি রুপি। ১৮ মার্চ থেকে বন্ধ ছিল শুটিং: মহামারির কারণে ১৮ মার্চ থেকে বন্ধ হয়ে যায় শুটিং ফ্লোর। পাশাপাশি বন্ধ করে দেওয়া হয় সিনেমা হল। বহুদিন লাইট-ক্যামেরার মুখ দেখেননি তারকারা। নিউ নরমাল পরিস্থিতিতে শুটিং শুরু হলেও মুক্তির জন্য ওটিটি প্ল্যাটফর্মকেই বেছে নিয়েছেন প্রযোজকরা। ‘গুলাবো সিতাবো’, ‘শকুন্তলা দেবী’, ‘লক্ষ্মী’, ‘দুর্গামতী’, ‘কুলি নম্বর ১’, ‘লুডো’ মুক্তি পেয়েছে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে। বলিউড হারিয়েছে যাদের: অভিশপ্ত বছরে বলিউড থেকে চির বিদায় নিয়েছেন একাধিক তারকা। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ঘটনা নাড়িয়ে দিয়েছিল পুরো বি-টাউন। তারপর ঋষি কাপুর, ইরফান খান, আসিফ বাসরা, নিশিকান্ত কামাত, এস পি বালসুব্রহ্মণ্যম, জগদীপ, সরোজ খান, ওয়াজিদ খান চলে গেছেন না ফেরার দেশে। তাদের মৃত্যুতে বড় ক্ষতির মুখে পড়েছে বলিউড।

সম্ভাবনার সিনেমা: ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছে বলিউড। নিউ নরমাল পরিস্থিতে নতুন সিনেমা মুক্তি দেওয়ার কথা ভাবছেন প্রযোজকরা। চলতি বছর মুক্তির কথা থাকলেও পিছিয়েছে বেশ কিছু সিনেমার মুক্তি। এছাড়া অপেক্ষায় আছে আমির খানের ‘লাল সিং চড্ডা’, সালমান খানের ‘রাধে’, অক্ষয় কুমারের ‘সূর্যবংশী’, ‘পৃথ্বীরাজ’, রণবীর কাপুরের ‘ব্রহ্মাস্ত্র’। ২০২০ সালের সেরা দশ সিনেমা: আয়ের দিক থেকে তালিকার প্রথমে আছে ‘তানহাজি: দ্য আনসাং ওয়ারিয়র’। দ্বিতীয় অবস্থানে ‘বাঘি-৩’। তারপর তালিকায় আছে ‘স্ট্রিট ড্যান্সার থ্রিডি’, ‘সুব মাঙ্গাল যায়াদা সাবধান’, ‘মালাঙ’, ‘ছপাক’, ‘লাভ আজ কাল’, ‘জাওয়ানি জানেমান’, ‘থাপ্পড়’, ‘পাঙা’।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply