sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » মালদ্বীপে ঘুরতে যাওয়া তারকাদের একহাত নিলেন নওয়াজ




মালদ্বীপে ঘুরতে যাওয়া তারকাদের একহাত নিলেন নওয়াজ

করোনার তাণ্ডবে ক্রমশ ভয়াবহ হচ্ছে ভারতের পরিস্থিতি। এমন সংকটময় মুহূর্তে নিজের সহকর্মীদের দিকে আঙুল তুললেন অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী। অতিমারির সংকটের মধ্যেই বলিউডের বহু তারকা উড়ে গেছেন বিদেশে ছুটি কাটাতে। অবসর যাপনের জন্য সিংহভাগই বেছে নিয়েছেন মলদ্বীপকে। মিনিটে মিনিটে ফটোও পোস্ট করছেন। জাহ্নবী কাপুর, দিশা পাটানি, শ্রদ্ধা কাপুর, আলিয়া ভাটের মতো তারকাদের ইনস্টাগ্রামের দেওয়ালে সাজানো রয়েছে নীল জলের দেশে কাটিয়ে আসা নানা মুহূর্তের ছবি। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জিনিউজ জানিয়েছে, কঠিন সময়ে তারকাদের এভাবে দেশ ছেড়ে নিশ্চিন্তের দিন কাটানোয় চটেছেন অভিনেতা। এক সাক্ষাৎকারে ক্ষোভ ঝাড়লেন নওয়াজ। সুর চড়িয়ে বলেন, লোকের কাছে খাবার নেই আর আপনারা পয়সা উড়িয়ে চলেছেন। ছুটি কাটাতে যাওয়াটা ভুল নয় কিন্তু তা দেখানোর প্রয়োজন নেই। এবার তো অন্তত একটু লজ্জা পান। এখানেই শেষ নয়, তীব্র কটাক্ষ করে অভিনেতা আরও বলেন, এ ছাড়া আর কী করবে এরা? কী নিয়েই বা কথা বলবে? অভিনয়? সে বিষয়ে তো দু’মিনিটে হাওয়া বেরিয়ে যাবে এদের। মলদ্বীপকে এরা তামাশা বানিয়ে ছেড়েছে। আমি ঠিক জানি না পর্যটন শিল্প সংস্থার সঙ্গে এদের কোনো বোঝাপড়া রয়েছে কিনা। কিন্তু মানবিকতার খাতিরে এইসব ছুটি কাটানোর ছবি নিজেদের কাছে রাখুন। দেশে রোজ বেড়ে চলেছে কোভিড আক্রান্তদের সংখ্যা। দয়া করে একটু বুঝুন। হৃদয়টাকে কাজে লাগান। প্রসঙ্গত, ভারতে প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্য। মহামারি আকার ধারণ করা করোনায় দেশটিতে একদিনে শনাক্ত ও মৃত্যুর সব রেকর্ড ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছেন রেকর্ড সাড়ে তিন লাখ। আর মারা গেছেন ২ হাজার ৭ শতাধিক মানুষ। দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, রোববার দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৪৯ হাজার ৬৯১, যা এ যাবৎ সর্বাধিক। এ পর্যন্ত সেখানে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ৬৯ লাখ ৬০ হাজার ১৭২ জন। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৭৬৭ জনের, যা এখনও পর্যম্ত সবচেয়ে বেশি। এ পর্যন্ত ভারতে করোনা আক্রান্ত হয়ে মোট এক লাখ ৯২ হাজার ৩১১ জন মারা গেছেন। ভারতে এখন রাজ্যে রাজ্যে অক্সিজেনের জন্য হাহাকার চলছে। হাসপাতালগুলোতে করোনা রোগীদের মৃত্যু যেন থামছেই না।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply