Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » রোনালদোর রেকর্ডময় রাত, ড্র হলো ফ্রান্স-পর্তুগাল লড়াই




রোনালদোর রেকর্ড গড়ার রাতে জিততে পারেনি পর্তুগাল। জিততেও দেয়নি প্রতিপক্ষ ফ্রান্সকে। বিশ্ব আর ইউরো চ্যাম্পিয়নের লড়াই শেষ হয়েছে ২-২ সমতায়। গ্রুপ অব ডেথ থেকে ফ্রান্স, জার্মানি আর পর্তুগাল উঠেছে শেষ ষোলোয়। রোনালদো-বেনজামা সাবেক দুই রিয়াল মাদ্রিদ সতীর্থের একান্তে আলাপ। যেন কতদিন পর দেখা বন্ধুর। তবে মিষ্টি কথায় মাঠের পারফরম্যান্সে ছাড় দেননি একে অপরকে। দুজনের জোড়া গোলে বিশ্ব আর ইউরো চ্যাম্পিয়নের লড়াই সমতায় সমাপ্তি। হাসিমুখে মাঠ ছাড়তে পেরেছে দু দল। কেননা দু দলেরই শেষ ষোলোর লক্ষ্য পূরণ হয়েছে। তবে ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোর জন্য রাতটা ছিলো স্মরণীয়। রেকর্ডময়। প্রথম গোলে টপকেছেন মিরোস্লাভ ক্লোসাকে। বিশ্বকাপ আর ইউরো মিলে সবচেয়ে বেশি গোল এখন পর্তুগাল যুবরাজের। সেই আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে দেননি বেনজামা। প্রায় ছয় বছর পর ফরাসী জার্সিতে গোলের দেখা পেলেন এই স্ট্রাইকার। পেনাল্টি গোলে পিছিয়ে পড়া। স্পট কিকেই সমতা ফেরানো। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে সমতা ফিরিয়ে আনন্দ নিয়ে বিরতিতে গিয়েছিলো লেস ব্লুজ। ফিরেই আনন্দটা আরো বেড়েছে । মাত্র দু মিনিটের মধ্যে লিড পেয়েছে। ফ্রান্সের গতি আর স্কিলের কাছে এদিনও অসহায় প্রতিপক্ষ। তবে গোলরক্ষক রুই প্যাট্রিসিয়া বাঁচিয়ে দিয়েছেন সেলেসাও দ্য কুইনাসদের। পল পগবা আর আতোয়া গ্রিয়েজম্যানের শট সেভ করে নায়ক তিনি। কিন্তু ম্যাচ শেষে আলোটা কেড়ে নিয়েছেন সি আর সেভেন। দ্বিতীয় গোলে ম্যাচে ফিরিয়েছেন দলকে, সঙ্গে নিজের বিশ্বরেকর্ড। ইরানি স্ট্রাইকার আলী দাইয়ের ১৫বছর টিকে থাকা সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ডে সঙ্গী এখন সি আর সেভেন। জাতীয় দলের জার্সিতে ১০৯টি কোরে গোল দুজনের। ইউরোতে ৩ ম্যাচে ৫ গোল। গোল্ডেন বুটের যোগ্য দাবিদার। সঙ্গে ২০১৬র পথ অনুসরণ করে চলেছে পর্তুগাল। সেবারও গ্রুপে তৃতীয় সেরা হয়েই শিরোপার পথে হেঁটেছিলো।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply