Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » টেক্সাস সীমান্তে হাজার হাজার শরণার্থী, বিপাকে বাইডেন প্রশাসন




অভিবাসী ইস্যুতে বেকায়দায় পড়তে যাচ্ছে বাইডেন প্রশাসন। টেক্সাস সীমান্তে জড়ো হওয়া হাইতি থেকে আসা লোকজন তার প্রশাসনের জন্য মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠেছে। টেক্সাস সীমান্তে হাজার হাজার শরণার্থী, বিপাকে বাইডেন প্রশাসন সীমান্তরক্ষীরা হাইতির শরণার্থীদের সঙ্গে মানবিক আচরণ করছে না দাবি করেছে বেশ কয়েকটি মানবাধিকার সংগঠন। এ নিয়ে হোয়াইট হাউজে চিঠিও দিয়েছে তারা। মেক্সিকোর টেক্সাস সীমান্তবর্তী অঞ্চলে এখনো অভিবাসীদের ঢল অব্যাহত। এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র প্রায় ১৫ হাজার অভিবাসন প্রত্যাশীর অনেককেই হাইতিতে ফিরিয়ে দিয়েছে। তবুও অনেকে আশায় আছেন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের। এখনো হাইতির অন্তত চার হাজার অভিবাসন প্রত্যাশী সীমান্তের অস্থায়ী শিবিরগুলোতে অবস্থান করছে। অভিবাসন নিয়ে রাজনীতির সূচনা ট্রাম্পের সময়ে হলেও এর জের টেনে চলেছে বাইডেন প্রশাসন। সীমান্তরক্ষীরা হাইতি শরণার্থীদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করছে বলে দাবি করেছে বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন। তারা বলছে, বর্ডার পেট্রল বাহিনীর আচরণ ট্রাম্পের সময় যেমন ছিল এখনো ঠিক তাই আছে। শরণার্থীদের দেশে ফেরত পাঠানো হবে, না আশ্রয় দেওয়া হবে সে বিষয়েও সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগে অভিবাসন প্রত্যাশীদের পক্ষে কথা বললেও এখন সুর পাল্টেছেন বাইডেন। নির্বাচনের আগে তিনি জানিয়েছিলেন মানবাধিকার হবে তার পররাষ্ট্রনীতির মূল স্তম্ভ। যদিও সে কথায় আর কাজে এখন মিল পাচ্ছে না মানবাধিকার সংগঠনগুলো। বাইডেন প্রশাসন যেন হাইতির শরণার্থীদের নিজ দেশে ফেরত না পাঠায় সে বিষয়ে অনুরোধ জানিয়ে এরই মধ্যে ৩৮টি নাগরিক ও অভিবাসী অধিকার সংগঠনের এক জোটের পক্ষ থেকে হোয়াইট হাউজে চিঠি দেয়া দিয়েছে। আরও পড়ুনঃ যুক্তরাষ্ট্রের-হুঁশিয়ারি-উপেক্ষা-রুশ-ক্ষেপণাস্ত্র-কিনছে-তুরস্ক এতে বলা হয়েছে, 'হাইতিতে সরাসরি প্লেনে করে শরণার্থী ফেরত পাঠিয়ে তাদের চরম দুর্দশার মুখে ঠেলে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার। এভাবে শরণার্থীদের ফেরত না পাঠাতে অনুরোধ জানায় সংগঠনগুলো। এছাড়া সীমান্তে যারা নিরাপদ আশ্রয় চাইছে তাদের বিষয়টি বিবেচনা করারও আহ্বান জানানো হয়। মেক্সিকো জানিয়েছে, দেশটিতে অবস্থানরত হাইতি অভিবাসীরা নিজ দেশে ফিরতে চাইলে তাদের পাঠাতে বিমান ব্যবস্থা চালু করা হবে। এদিকে, স্থানীয় সময় রোববার হাইতিতে ফেরত পাঠানো অভিবাসীরা দেশটিতে অবস্থিত যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভ করেছেন। এ সময় বাইডেন প্রশাসন বিরোধী বিভিন্ন স্লোগান দেন তারা। শরণার্থী ফেরত পাঠানো বন্ধের পক্ষে লেখা ব্যানার হাতে বিক্ষোভে অংশ নেন তারা।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply