sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার নতুন স্থান নির্ধারণ




মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমে যাওয়ায় ২০২২ সালের ২৬তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা রাজধানীর পূর্বাচলে স্থাপিত বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশীপ এক্সিবিশন সেন্টারে আয়োজনের অনুমোদন দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এক চিঠিতে রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোকে (ইপিবি) মেলা আয়োজনের অনুমোদন দিয়েছে। এ বছরই বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে প্রথম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা আয়োজনের প্রস্তুতি নিয়েছিল ইপিবি। কিন্তু করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে তা বাস্তবায়ন সম্ভব হয়নি। বর্তমানে করোনা সংক্রমণ কমে আসায় আগামী বছরের ১ জানুয়ারি থেকে বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে শুরু হবে মাসব্যাপি এ আয়োজন। আরও পড়ুনঃ ইভ্যালিসহ ১০ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের দায় নেবে না বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ১৯৯৫ সাল থেকেই ঢাকার শেরে বাংলা নগরে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার আয়োজন করে আসছে ইপিবি। এতে দেশ-বিদেশের কয়েকশ' প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়ে তাদের পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করে থাকে। এ মেলা থেকে দেশের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানগুলো অনেক রপ্তানি আদেশ (অর্ডার) পেয়ে থাকে। এছাড়া রাজধানীবাসীসহ দেশের বিভিন্ন জেলার নাগরিকরাও মেলায় গিয়ে কেনাকাটা করেন। গত কয়েক বছর ধরে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে, বলা যায় উৎসবমুখর পরিবেশে মানুষ কেনাকাটা করে থাকেন। বছরব্যাপি এ মেলা আয়োজন করা হলেও কোনো স্থায়ী অবকাঠামো ছিল না। এছাড়া পূর্বাচলের নতুন শহরের ৪ নং সেক্টরে ২০ একর জমির ওপর ২০১৭ সালের অক্টোবরে মেলার অবকাঠামো নির্মাণ শুরু করে সরকার। চায়না স্টেট কনষ্ট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং করপোরেশন এ অবকাঠামো নির্মাণ করেছে। এতে ব্যয় হয়েছে ৭৭৩ কোটি টাকা।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply