Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » স্বামীর পর্নোগ্রাফি ব্যবসার কিছুই জানতেন না শিল্পা!




রাজ কুন্দ্রার পর্নোগ্রাফি মামলার ভিত্তিতে মুম্বাই ক্রাইম ব্রাঞ্চ সম্প্রতি ১৪৬৭ পাতার সম্পূরক চার্জশিট দাখিল করেছে। এই চার্জশিটে রাজের অভিনেত্রী স্ত্রী শিল্পা শেঠির সম্পূর্ণ বয়ান উল্লেখ আছে। গত ১৯ জুলাই পর্নছবি নির্মাণের অভিযোগে শিল্পপতি রাজ কুন্দ্রাকে গ্রেপ্তার করেছিল মুম্বাই ক্রাইম ব্রাঞ্চ। পর্নোগ্রাফি মামলায় ক্রাইম ব্রাঞ্চ বেশ কিছু অভিনেত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল। তাঁদের মধ্যে অনেকেই রাজের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ এনেছেন। পর্নছবি মামলার সঙ্গে জড়িত ৪৩ জনের বয়ান এই চার্জশিটে রয়েছে। মুম্বাই পুলিশ শিল্পার বাসায় তাঁকে এই মামলার বিষয়ে দীর্ঘক্ষণ জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল। শিল্পার বয়ান ক্রাইম ব্রাঞ্চ তাদের চার্জশিটে যোগ করেছে। এই বলিউড অভিনেত্রী বয়ানে রাজের সঙ্গে তাঁর প্রথম সাক্ষাতের কথা থেকে বিয়ে পর্যন্ত খুঁটিনাটি বিষয় জানিয়েছিলেন। শিল্পা জানিয়েছেন, ২০০৯ সালে রাজ কুন্দ্রা আইপিএলে রাজস্থান রয়্যাল নামের দলে ৭৫ কোটি রুপি বিনিয়োগ করেছিলেন। ওই সংগঠনের সঙ্গে চারটি বিদেশি অংশীদার রয়েছে। শিল্পা শেঠি শিল্পা শেঠি ইনস্টাগ্রাম রাজের ১৩ শতাংশ অংশীদারত্ব ছিল। কিন্তু আইপিএলে জুয়া খেলার অভিযোগ ওঠার পর তাঁকে রাজস্থান রয়্যালের অংশীদারত্ব থেকে বাদ দেওয়া হয়। তিনি আরও জানান, উমেশ কামাত ভিয়ান ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করতেন। তাঁকে এ বছর ফেব্রুয়ারিতে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এ ব্যাপারে রাজকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, উমেশ আর গহনা বশিষ্ঠ স্বাধীনভাবে অশ্লীল ভিডিও বানিয়ে বিক্রি করেছিল। বিজ্ঞাপন শিল্পা তাঁর বয়ানে জানিয়েছেন, বোলিফেম ওটিটির বিষয়ে তিনি কিছুই জানতেন না। তিনি এই মামলার তদন্তের সময় জানতে পেরেছেন, ভিয়ান কোম্পানি থেকে হটশটের জন্য নির্মিত অশ্লীল ভিডিওগুলো প্রদীপ বক্সির কেনরিন কোম্পানিকে পাঠানো হতো। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের সময় শিল্পা বলেছিলেন, ‘আমি নিজের কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকতাম। আর তাই রাজকে কখনো প্রশ্ন করিনি ও কী কাজ করছে। রাজও কখনো ওর কাজের ব্যাপারে আমাকে কিছু জানাত না। তাই এ বিষয়ে আমি বিন্দুবিসর্গ জানি না।’ শিল্পা তাঁর জবানবন্দিতে নিজের পড়াশোনা, ক্যারিয়ার আর অ্যাকাউন্ট–সংক্রান্ত সবকিছু জানিয়েছিলেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply