Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » এরদোয়ানের ধমকে অবস্থান পরিবর্তন পশ্চিমা বিশ্বের




তুরস্কে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রসহ ১০টি দেশের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারের নির্দেশের পর ইস্যুটি নিয়ে মুখ খুলতে শুরু করেছেন বিভিন্ন দেশের নেতারা। এরদোয়ানের ধমকে অবস্থান পরিবর্তন পশ্চিমা বিশ্বের তুরস্কে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রসহ ১০টি দেশের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কারের নির্দেশের পর ইস্যুটি নিয়ে মুখ খুলতে শুরু করেছেন বিভিন্ন দেশের নেতারা। এমন সিদ্ধান্ত দুঃখজনক উল্লেখ করে, দেশটির মানবাধিকার নিয়ে তুর্কি সরকারের কাছে জবাব চাওয়া হবে বলে জানিয়েছে ইউরোপীয় দেশগুলো। এদিকে, তুরস্কের এমন পদক্ষেপের একদিনের মাথায় দেশটির মুদ্রার মানে ভয়াবহ ধস নেমেছেতুরস্ক ইস্যুতে এবার নিজেদের অবস্থান পরিবর্তন করলো পশ্চিমা বিশ্ব। স্থানীয় সময় সোমবার তুরস্কের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, নেদারল্যান্ড, নিউজিল্যান্ড, ফিনল্যান্ড, সুইডেন, নরওয়ে এবং ডেনমার্ক। এখন পর্যন্ত জার্মানি এবং ফ্রান্স বাদে বাকি ৮টি দেশ "Vienna Convention on Diplomatic Relations" এর ৪১ নম্বর ধারা অনুযায়ী বিদেশী রাষ্ট্রদূতরা সে দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে পারবে না বলে ঘোষণা দিয়েছে। আরও পড়ুনঃ ডেল্টা-ভ্যারিয়েন্টের-থেকেও-ভয়ংকর-ধরন-শনাক্ত-ভারতে পশ্চিমা দেশগুলোর অবস্থান পরিবর্তন করে তুরস্কের সার্বভৌমত্ব মেনে নেওয়ায় এরদোয়ান তাদের এই বিবৃতিকে স্বাগত জানিয়েছেন। এর মাধ্যমে এই রাষ্ট্রদূতদের আর বহিষ্কার করা হবে না। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি এবং ফ্রান্সসহ দশটি দেশের রাষ্ট্রদূতদের তুরস্কে অবাঞ্চিত ঘোষণা করার যে হুমকি দিয়েছেন দেশটির রাষ্ট্রপতি রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান, তা নিয়ে পশ্চিমা বিশ্বে এখন নতুন পরিকল্পনা চলছে। জার্মানি জানিয়েছে , তুরস্কের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে পরবর্তী করণীয় ঠিক করতে তারা অন্য সব দেশের আলোচনা করবে। গত সোমবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ফ্রান্স, কানাডা, নেদারল্যান্ড, ফিনল্যান্ড, সুইডেন, নরওয়ে, ডেনমার্ক এবং নিউজিল্যান্ডের তুরস্কে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূতরা এক যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করেন। সেখানে তারা তুরস্কে আটক ওসমান কাভালা নামক এক তুর্কি ব্যবসায়ীর অনতিবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তির দাবি করেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply