Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » মিয়ানমারে বিক্ষোভ চলাকালে গাড়ি উঠিয়ে দিল সেনাবাহিনী, নিহত ৫




মিয়ানমারে বিক্ষোভ চলাকালে গাড়ি উঠিয়ে দিল সেনাবাহিনী, নিহত ৫ মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুনে অভ্যুত্থানবিরোধী বিক্ষোভে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী গাড়ি উঠিয়ে দিয়েছে। এতে পাঁচজন নিহত ও কয়েকজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। খবর রয়টার্সের। রোববার (৫ ডিসেম্বর) মিয়ানমারের বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুনে কমপক্ষে তিনটি বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। তাছাড়া দেশটির বিভিন্ন অংশে একই ধরনের বিক্ষোভ হয়েছে। গত ১ ফেব্রুয়ারি দেশটির ক্ষমতাচ্যুত বেসামরিক সরকারের প্রধান অং সান সু চির বিরুদ্ধে কয়েকটি ফৌজদারি মামলার প্রথমটিতে প্রত্যাশিত রায়ের আগেই এ ঘটনা ঘটল। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, মিয়ানমারের বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুনে বিক্ষোভ শুরু হওয়ার কয়েক মিনিট পরেই তাণ্ডব চালায় সেনাবাহিনী। হামলার পর জান্তাবিরোধী দেশটির জাতীয় ঐক্য সরকারের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, আমরা সন্ত্রাসী সামরিক বাহিনীকে কঠোর জবাব দেবো। তারা নিরস্ত্র শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের নৃশংস ও অমানবিকভাবে হত্যা করছে। চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকেই জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে আসছে দেশটির বিভিন্ন অঞ্চলের সশস্ত্রগোষ্ঠী। এরমধ্যে বেশকিছু শহরে মিয়ানমার সেনাদের হটিয়ে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ারও দাবি করেছে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর দলগুলো। সবশেষ দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় শান প্রদেশের বিদ্রোহী গোষ্ঠী মিয়ানমার ন্যাশনাল ডেমোক্র্যাটিক এলায়েন্স আর্মি এমএনডিএ'র দাবি, মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গে জুলাই থেকে এখন পর্যন্ত আড়াইশ'র বেশি সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে তারা। রক্তক্ষয়ী লড়াইয়ে গেল চার মাসে সেনাবাহিনীর প্রায় ২০০ সদস্য নিহত হয়েছেন বলেও দাবি গোষ্ঠীটির।

কোকাং গ্রুপ নামে পরিচিত এমএনডিএ আরও জানায়, যুদ্ধে প্রায় ৭০০ সেনা আহত হয়েছেন। অন্যদিকে, সংঘাতে নিজেদের ১০ বিদ্রোহী নিহত ও অর্ধশত আহত হয়েছেন বলেও জানান দলটির মুখপাত্র। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা না হওয়া পর্যন্ত সশস্ত্র আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে এমএনডিএ। এদিকে ক্ষমতাচ্যুত নেত্রী অং সান সু চির বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলার রায় পিছিয়েছে। মঙ্গলবার দেশটির একটি আদালত তার বিরুদ্ধে করা মামলার রায়ের দিন আগামী ৬ ডিসেম্বর ধার্য করেন। এই মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলে প্রথমটিতে সর্বোচ্চ দুই বছর ও পরেরটিতে সু চির সর্বোচ্চ তিন বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে। একইদিন সামরিক সরকারের হাতে কারাগারে বন্দি সু চির বিরুদ্ধে নতুন করে দুর্নীতির মামলা করেছে জান্তা সরকার। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেলে বলা হয়, সু চির পাশাপাশি ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট উইন মিন্তের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনা হয়েছে। হেলিকপ্টার ক্রয় ও ভাড়া সংক্রান্ত মামলাগুলো দুর্নীতির অভিযোগের মধ্যে পড়বে বলে জানানো হয়। আদালতে অভিযোগ প্রমাণিত হলে ১৫ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে তাদের। গত পহেলা ফেব্রুয়ারি মিয়ানমার সেনাবাহিনী ক্ষমতা নেওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত জান্তাবিরোধীদের সঙ্গে সংঘর্ষে এক হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। কারাবন্দি রয়েছেন কয়েক হাজার।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply