Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » মৃত্যুঞ্জয়ের হ্যাটট্রিক, রোমাঞ্চকর ম্যাচে চট্টগ্রামের জয়




চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও সিলেট সানরাইজার্সের ম্যাচ। উইল জ্যাকস ও বেনি হাওয়েলদের দারুণ ব্যাটিংয়ে স্কোরবোর্ডে ২০০ ছাড়ানো স্কোর জমা করে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। যেটা চলতি বিপিএলে প্রথম ২০০ ছাড়ানো ইনিংস। একই ম্যাচে হ্যাটট্রিক করলেন চট্টগ্রামের বোলার মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী। এটাও এবারের বিপিএলের প্রথম হ্যাটট্রিক। ব্যাটে-বলের এমন দাপুটে দিনে সহজেই সিলেট সানরাইজার্সকে ১৬ রানে হারিয়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। নিজেদের ঘরের মাঠে গতকাল প্রথম ম্যাচেই হার দেখেছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। দুই পরাজয়ে ব্যাকফুটে থাকা চট্টগ্রাম আজ শনিবার তুলে নিল দারুণ এক জয়। অন্যদিকে চার ম্যাচে এই নিয়ে তৃতীয় হারের মুখ দেখল সিলেট। চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ২০৩ রান তাড়া করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৮৬ রান করে সিলেট। আগের দিন সেঞ্চুরি করা সিমন্স আজ করেন ৯ রান। তবে লড়াই করেছেন এনামুল হক বিজয়। ৪৭ বলে ৭৮ রান করেন তিনি। তাঁর সঙ্গে কোলিন করেন ৫০ রান। রবি বোপারা করেন ১৬ রান। চট্টগ্রামের হয়ে ১৮তম ওভারে হ্যাটট্রিক করেন মৃত্যুঞ্জয়। ওই ওভারের প্রথম বলে তাঁকে ছক্কা হাঁকান এনামুল। পরের বলে হাঁকান বাউন্ডারি। কিন্তু এরপর বল হাতে চমক দেখান মৃত্যুঞ্জয়। পরের তিন বলেই তুলে নেন এনামুল, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ও রবি বোপারার উইকেট। টানা তিন উইকেট তুলে নিয়ে হ্যাটট্রিকের উচ্ছ্বাসে ভাসেন মৃত্যুঞ্জয়। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ১২তম ম্যাচে এদিন আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ২০২ রান সংগ্রহ করে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৫২ রান করেছেন চট্টগ্রামের ওপেনার উইল জ্যাকস। এদিন টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু করে চট্টগ্রাম। ওপেনিং জুটিতে ৬২ রান তোলে বন্দরনগরীর দলটি। শুরু থেকে মেরে খেলেন ওপেনার জ্যাকস। আরেক ওপেনার কেনার লুইসকে সঙ্গে নিয়ে সাগরিকায় ঝড় তোলেন জ্যাকস। সিলেটের বোলারদের তুলোধুনো করে মাত্র ১৯ বলে ৫২ রানের ঝোড়ো ইনিংস উপহার দেন তিনি। ২৭৬ স্ট্রাইক রেটে হাঁকান সাত বাউন্ডারি ও তিনটি ছক্কা। পঞ্চম ওভারে জ্যাকসের ঝড় থামান তাসকিন আহমেদ। পরের ওভারে লুইসকে বিদায় করেন সোহাগ গাজী। ১২ বলে তিনি করেন ৮ রান। এরপর সাব্বির রহমান ও আফিফ হোসেন প্রতিরোধ গড়েন। ২৮ বলে ৩৮ রানের ইনিংস উপহার দেন আফিফ। সাব্বির করেন ২৯ বলে ৩১ রান। সাব্বির-আফিফ ফিরলে শেষ দিকে বেনি হাওয়েলের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে চড়ে নির্ধারিত ওভারে শক্ত পুঁজি গড়ে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। সংক্ষিপ্ত স্কোর চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স : ২০ ওভারে ২০২ (জ্যাকস ৫২, লুইস ৮, আফিফ ৩৮, সাব্বির ৩১, হাওয়েল ৪১, নাঈম ৮, মিরাজ ১৩; সৈকত ৪-০-২৫-১, বোপারা ৪-০-২৩-১, মুক্তার ২-০-২৬-১, আলাউদ্দিন ১-০-১৪-০, তাসকিন ৪-০-৫৩-১, সোহাগ ২-০-১৮-১, সানজামুল ৩-০-৩৪-০ )। সিলেট সানরাইজার্স : ২০ ওভারে ১৮৬/৬ (সিমন্স ৯, এনামুল ৭৮, কোলিন ৫০, বাবু ১, বোপারা ১৬, মিঠুন ৭, মুক্তার ৮; শরিফুল ৪-০-৩৯-০, নাসুম ৪-০-১৮-২, মিরাজ ৩-০-৩১-১, রেজাউর ২-০-৩৬-০ , মৃত্যুঞ্জয় ৪-০-৩৩-৩)। ফল : ১৬ রানে জয়ী চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply