Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » উত্তর কোরিয়ার ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা




এক সপ্তাহের ব্যবধানে দুইবার হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোয় উত্তর কোরিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিলো যুক্তরাষ্ট্র। ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষায় সহায়তা ও প্রত্যক্ষ মদদের জেরে উত্তর কোরিয়ার পাঁচ নাগরিক এবং রাশিয়ার তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে বাইডেন প্রশাসন। এছাড়াও, সিরিজ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোয় দেশটির বিরুদ্ধে কঠোর নিষেধাজ্ঞা দিতে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ওয়াশিংটন। এদিকে, নিজের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সবধরনের উত্তেজনার নিরসন চান দক্ষিণ কোরীয় প্রেসিডেন্ট। নতুন বছরের শুরুতেই এক সপ্তাহের ব্যবধানে দুই দফায় হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়ে বিশ্বজুড়ে আলোচনায় উত্তর কোরিয়া। গেল বৃহস্পতিবার একটি এবং এর সাত দিনের মাথায় মঙ্গলবার আরও একটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায় পিয়ংইয়ং। আরও পড়ুনঃ ভয়ঙ্কর-আইসোলেশনের-ব্যবস্থা-চীনে-করোনা-আক্রান্ত-সন্দেহ-হলেই-ধাতব-বাক্সে-ঢুকিয়ে-দিচ্ছে-চীন দেশটির এমন নেতিবাচক কার্যক্রমে বুধবার উত্তর কোরিয়ার পাঁচ কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এদিন মার্কিন অর্থ বিভাগের এক বিবৃতিতে বলা হয়, উত্তর কোরিয়ার গণবিধ্বংসী অস্ত্র ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি প্রতিরোধের অংশ হিসেবেই এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হলো। ওই পাঁচ কর্মকর্তার পাশাপাশি উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচিতে সহায়তা এবং প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ মদদ দেয়ায় মার্কিন নিষেধাজ্ঞার তালিকায় যুক্ত করা হয়েছে রাশিয়ার তিন কর্মকর্তাকেও। এদিকে, একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানোয় উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিও আহ্বান জানিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেই গেল বছর সেপ্টেম্বর থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত ৬টি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। এতে, আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করা হয়েছে বলে বুধবার এক টুইট বার্তায় জানান মার্কিন কূটনীতিক লিন্ডা থমাস গ্রিনফিল্ড। এদিকে, দক্ষিণ কোরীয় প্রেসিডেন্ট মুন জেই ইন বলেছেন, নিজের মেয়াদকালের মধ্যেই পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে সব দ্বন্দ্বের অবসান চান তিনি। উত্তর কোরিয়ার সাম্প্রতিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা দুই কোরিয়ার সম্পর্কের আরও অবনতি ঘটাতে পারে বলেও উদ্বেগ প্রকাশ করেন মুন। তবে পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে শান্তি প্রতিষ্ঠায় তার সরকার হাল ছাড়বে না বলেও জানান দক্ষিণ কোরীয় প্রেসিডেন্ট।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply