Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » কিউইদের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয়ের প্রতিক্রিয়ায় যা বললেন পেসার এবাদত




তার বলে তেমন সুইং নেই। ভালো বাউন্স কিংবা বোলিংয়ে ভ্যারিয়েশন আনতেও খুব একটা পারদর্শী নন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কিছুদিন আগেও ট্রল হয়েছিলেন তিনি। ইবাদত হোসেনকে সমালোচকরা নাম দিয়েছিলেন ‘রাইট হ্যান্ড বল থ্রোয়ার’! আর সেই এবাদতেই কাটা পড়ল কিউইরা। আগের দিন ৪ উইকেট নেওয়া এবাদত শেষ দিনেও নায়ক। ৪৬ রানে তার শিকার ৬ উইকেট। দেশের বাইরে টেস্টে বাংলাদেশের সেরা বোলিংয়ের রেকর্ড এটি। তার হাত ধরে প্রায় ৯ বছর ও ৪৭ ম্যাচ পর টেস্টে ৫ উইকেট পেলেন বাংলাদেশের কোনো পেসার। এবাদতের ক্যারিয়ারসেরা বোলিংয়ে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট জয়ের স্বাদ নিল বাংলাদেশ, নিউজিল্যান্ডের মাটিতেই। টম লাথামের দলকে ৮ উইকেটে হারাল মুমিনুল বাহিনী। ম্যাচ শেষে স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচ অব দ্য ম্যাচ এবাদত হোসেন। ম্যাচ জয়ের প্রতিক্রিয়ায় এবাদত বলেন, ‘প্রথমে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করছি। দ্বিতীয়ত, নিউজিল্যান্ডের মাটিতে, আমারা গত ২১ বছরে জয় পাইনি। আমরা এবার একটা লক্ষ্য স্থির করেছি। আমরা সবাই প্রতিজ্ঞা করেছি। নিউজিল্যান্ডকে আমাদের হারাতিই হবে। নিজেদের মাটিতে তারা টেস্ট চ্যাম্পিয়ন, আমরা পারলে আমাদের পরবর্তী প্রজন্মও তাদের হারাতে পারবে। এবাদত আরও বলেন, ‘গত দুই বছরে, আমি ওটিস গিবসনের সাথে অনুশীলনে ঘাম ঝরিয়েছি। আমাদের ঘরের কন্ডিশন সবসময়ই ফ্ল্যাট থাকে। আমরা এখনও শিখছি কিভাবে বোলিং করতে হয় এবং দেশের বাইরের কন্ডিশনে রিভার্স সুইং করতে হয়। আমি স্টাম্পের উপরে আঘাত করার চেষ্টা করছি। সফলতার জন্য ধৈর্য ধরে বল করে গেছি। এবাদত জানান, ‘আমি বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একজন সৈনিক তাই স্যালুট করতে জানি। ভলিবল থেকে ক্রিকেটে আসা দীর্ঘ একটি গল্প । আমি ক্রিকেট উপভোগ করছি, বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর প্রতিনিধিত্ব করছি।’






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply