Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » আফগানিস্তানকে উড়িয়ে দিল বাংলাদেশ




আফগানিস্তানকে উড়িয়ে দিল বাংলাদেশ দলের সাফল্যে খেলোয়াড়দের উল্লাস। ছবি : সংগৃহীত

ব্যাট হাতে আফগানিস্তানকে খুব একটা বড় লক্ষ্য দিতে পারেনি বাংলাদেশ। লিটন দাসের হাফসেঞ্চুরিতে স্কোরবোর্ডে মোটামুটি মাঝারি সংগ্রহ পেয়েছে লাল-সবুজের দল। বাংলাদেশের দেওয়া এই রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারিয়েছে আফগানিস্তান। বল হাতে বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দিয়েছেন নাসুম আহমেদ। প্রথম ওভারেই রহমতউল্লাহকে ফিরিয়েছেন নাসুম। নিজের পরের ওভারের এসে নাসুমই তুলে নিলেন আরেকটি উইকেট। ফিরিয়ে দিলেন হজরতউল্লাহ জাজাই ও রাশোলিকে। নাসুমের দুর্দান্ত সাফল্যে বোলিংয়ে বাংলাদেশ বেশ দাপট দেখাচ্ছে। আফগানদের পড়া প্রথম চার উইকেট তুলে নেন নাসুম। তবে পঞ্চম উইকেট জুটিতে চাপ কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করেও পারেনি আফগানিস্তান। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে যায় তারা। আজ বৃহস্পতিবার সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৫৫ রান গড়ে বাংলাদেশ। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অবশ্য শুরুতেই হোঁচট খায় বাংলাদেশ। ওপেনিংয়ে লিটন দাসের বদলে দুই তরুণ ব্যাটার মুনিম শাহরিয়ার ও মোহাম্মদ নাঈমে ভরসা রাখে টিম ম্যানেজমেন্ট। কিন্তু দুজনের ওপেনিং জুটি বড় হলো না। দলীয় ১০ রানে বাংলাদেশকে হতাশায় ডোবান নাঈম। লম্বা সময় ধরে অফ ফর্মে থাকা নাঈম এবারও পারলেন না হাল ধরতে। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে ফজল হক ফারুকির ফুল লেংথ ইনসুইঙ্গিং ডেলিভারি ঠিকমতো খেলতে ব্যর্থ হন নাঈম। বল লাগে নাঈমের পেছনের পায়ে। সঙ্গে সঙ্গে জোরাল আবেদন তোলে আফগানরা। যদিও তাতে সাড়া দেননি আম্পায়ার। পরে রিভিউ নিয়ে সফল হয় আফগানিস্তান। ২ রানে ফেরেন নাঈম। নাঈম ফেরার কিছুক্ষণ পরই ফিরে যান মুনিম। ক্যারিয়ারের প্রথম ম্যাচে বাউন্ডারিতে দারুণ কিছুর আভাস দিলেও বেশিক্ষণ থিতু হতে পারেননি। পঞ্চম ওভারে রশিদ খানের এলবির ফাঁদে পড়েন তিনি। আফগান লেগ স্পিনারের বলে সুইপ করার চেষ্টায় ছিলেন মুনিম। কিন্তু ব্যাটে-বলে লাগাতে পারেননি। উল্টো আউট হন। অভিষেক ম্যাচে ১৮ বলে ১৭ রানে থামেন মুনিম। দুই ওপেনারকে হারিয়ে পাওয়ার প্লেতে ৩৭ রান তোলে বাংলাদেশ। চারে নামা সাকিব আল হাসানও টিকতে পারেননি আজ। ৫ রানে তাঁকে বিদায় করেন কায়েস আহমেদ। লেগ স্পিনার কাইস আহমেদের বলে শর্ট ফাইন লেগে ক্যাচ তুলে দেন সাকিব। সেখানে থাকা মুজিব উর রহমান ক্যাচ হাতের মুঠোয় নিতে দেরি করলেন না। আগের দিন চার-ছক্কা মারার কথা বলা মাহমুদউল্লাহ থামেন ১০ রানে। তবে চার টপ অর্ডার ব্যাটার ব্যর্থ হলেও স্রোতের বিপরীতে ছিলেন লিটন। টেস্ট-ওয়ানডের মতো টি-টোয়েন্টিতেও ফর্ম দেখালেন তিনি। ৩৩ বলে তুলে নেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের পঞ্চম হাফসেঞ্চুরি। তাঁর হাফসেঞ্চুরিতে নির্ধারিত ওভারে ১৫৫ রানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ। শেষ পর্যন্ত ৬০ রান করে থামেন লিটন। তাঁর সঙ্গে শেষ দিকে আফিফ করেন ২৫ রান। অভিষিক্ত ইয়াসিরের ব্যাট থেকে আসে ৮ রান।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply