Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » বিজেপির ট্রাম্প কার্ড এবার দ্রৌপদি মুর্মু




ভারতে এখন সবচেয়ে বেশি আলোচিত নাম দ্রৌপদি মুর্মু। দেশটির ১৫তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এবার ক্ষমতাসীন বিজেপির হয়ে লড়ছেন সাঁওতাল সম্প্রদায়ের এই নারী। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, এ নির্বাচনে বেশ এগিয়েই আছেন দ্রৌপদি। আর এ নির্বাচনে জয়ী হলে তিনিই হবেন ভারতের সর্বোচ্চ পদে আদিবাসীদের প্রতিনিধিত্বকারী প্রথম ব্যক্তি। ভারতে প্রেসিডেন্ট পদে লড়াই করা দ্রৌপদি মুর্মু শুধু নারী নন, একজন সাঁওতাল সম্প্রদায়ভুক্ত আদিবাসীও। ভারতের মতো দেশে এবারই প্রথম কোনো নারী আদিবাসী দেশটির সর্বোচ্চ পদে প্রার্থী হয়ে লড়ছেন। তাও আবার বিজিপির মতো দল থেকে। কে এই দ্রৌপদি মুর্মু? কেনই বা তাকে প্রার্থী করল বিজেপি? ওড়িশার একটি স্কুলে শিক্ষকতা দিয়ে কর্মজীবন শুরু করেন দ্রৌপদি মুর্মু। তবে ধীরে ধীরে ঝুঁকতে থাকেন রাজনীতির দিকে। ১৯৯৭ সাল থেকে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হলেও ২০১৭ সালে প্রথমবারের মতো বড় পরিসরে আলোচনায় আসেন দ্রৌপদি। আগে থেকেই রাজনৈতিক অঙ্গনে সুনাম কুড়ানো দ্রৌপদির নাম সে সময়ের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের তালিকায় ছিল বলেও গুঞ্জন ওঠে। তবে এবার আর জল্পনা-কল্পনা নয়। সব কিছু পেছনে ফেলে এবছর ২০ জন প্রার্থীর মধ্যে তার নাম চূড়ান্ত করা হয়। তালিকায় আরও তিনজন আদিবাসীর নাম ছিল বলে জানা যায়। আরও পড়ুন: বিজেপির প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ঘোষণা, কে এই দ্রৌপদি মুর্মু? ভারতীয় গণমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, এবারের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের দৌড়ে দ্রৌপদি এগিয়ে আছেন। তবে ভারতে সাম্প্রদায়িক দল হিসেবে পরিচিত বিজেপি কেন একজন সাঁওতাল নারীকে তাদের রাষ্ট্রপতি প্রার্থী করল তা নিয়েও কৌতূহলের শেষ নেই। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, এর পেছনে রয়েছে জটিল রাজনৈতিক সমীকরণ। সামনে ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্যে নির্বাচন রয়েছে। গুজরাটে কয়েক দশক ধরে বিজেপি আধিপত্য বিস্তার করে আসলেও দলটি এখনো গ্রাম বাংলার আদিবাসীদের মন জয় করতে পারেনি। আছে ভোটের রাজনীতিও। সব মিলিয়ে, নিজেদের জায়গা আরও পাকাপোক্ত করতেই বিজেপি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply