Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » মেহেরপুরে কৃতিসন্তান মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, সাংবাদিক, লেখকমোহাম্মদ রবীউল আলম




মেহেরপুরে কৃতিসন্তান মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, সাংবাদিক, লেখকমোহাম্মদ রবীউল আলম,নির্বাহী সম্পাদক সাপ্তাহিক মুক্তিবানী: মেহেরপুর জেলার কৃতিসন্তান দেশ বরেণ্য সাংবাদিক সাপ্তাহিক মুক্তিবানীর নির্বাহী সম্পাদক মোহাম্মদ রবীউল আলম

লেখক, সাংবাদিক ও সংগঠক মুহম্মদ রবীউল আলম ১৯৬১ সালের ১ জানুয়ারি মেহেরপুর শহরের বাস স্ট্যান্ডপাড়ায় এক সম্ভান্ত পরিবারে জন্ম। তার পিতা প্রয়াত রইসউদ্দিন শেখ (ফইম) মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে মেহেরপুর শহর সংগ্রাম কমিটির অন্যতম সদস্য।মা প্রয়াত রওশন আরা বেগম ছিলেন গৃহিনী। বড় চাচা নঈমউদ্দিন শেখ মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে মেহেরপুর শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি মেহেরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি (১৯৭৭),মেহেরপুর সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি (১৯৭৯), স্নাতক কলা (১৯৮১) এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ থেকে এমএ পরীক্ষায় মেধাতালিকায় ৩য় স্থান অধিকার করেন। তিনি রাজধানী ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক দেশ ও যশোর থেকে প্রকাশিত দৈনিক রানার পত্রিকায় মেহেরপুর প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেন এবং মেহেরপুর প্রেসক্লাবকে এগিয়ে নিতে ভূমিকা রাখেন। দেশ স্বাধীনের পর ১৯৭৮ সালে তিনি মেহেরপুরের শিশু-কিশোরদের আদর্শ নাগরিক গড়ে তুলতে ধারাপাত খেলাঘর আসর নামে একটি শিশু-সংগঠন গড়ে তোলেন । তিনি এই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ও খেলাঘর জাতীয় পরিষদের অন্যতম সদস্য ছিলেন। তিনি ঢাকা থেকে প্রকাশিত ‘দৈনিক পত্রিকা’তে সহকারি সম্পাদক হিসেবে ১৯৮৫ সালে যোগদান করেন।১৯৮৭ সালে দেশের জনপ্রিয় সাপ্তাহিক মুক্তিবাণীতে সহকারি সম্পাদক হিসেবে যোগদান করেন। আজ পর্যন্ত তিনি এই পত্রিকায় নির্বাহী সম্পাদক ও পরে ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক হিসেবে কর্মরত আছেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর এই পত্রিকাটি এই হত্যাকান্ডের প্রথম বিচার দাবি করেছিল। মুক্তিবাণীর পাশাপাশি তিনি দীর্ঘকাল সাপ্তাহিক পলাশী ও বিশ্ববিদ্যালয় পরিক্রমার নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে তার রচিত গ্রন্থ ‘মুন্সী শেখ জমিরুদ্দিনঃ জীবন ও সাহিত্য’(১৯৮৪) প্রকাশিত হয়েছে। তিনি ও ড.মুহম্মদ ফজলুল হক ‘স্বাধীনতার প্রথম শহীদ নবাব সিরাজ-উদ-দৌলা’ নামে একটি বৃহৎ গ্রন্থ সম্পাদনা করেন। ‘মেহেরপুরের নামকরণ ও অন্যান্য প্রসঙ্গ’ নামে একটি গ্রন্থ তার প্রকাশের অপেক্ষায় রয়েছে। দেশের বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় তিনি নিয়মিত লেখালেখি করেন। বৃহত্তর কুষ্টিয়ার ইতিহাস নিয়ে কাজ করছেন। ফেইসবুকে তার প্রতিষ্ঠিত ‘গ্রেটার কুষ্টিয়া নিউজ’ নামে গ্রুপ ব্যাপক নাম করেছে। তিনি গ্রেটার কুষ্টিয়া নিউজ এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ফ্রেন্ডস যেখানেই থাকি হৃদয়ে মতিহার-এর প্রধান এডমিন ও সম্পাদক। ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ও বাংলা একাডেমির সদস্য।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply