Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » খাদ্যশস্য রফতানি নিয়ে ইউক্রেন-রাশিয়া ঐকমত্যে পৌছেছে: তুরস্ক




খাদ্যশস্য রফতানি নিয়ে ইউক্রেন-রাশিয়া ঐকমত্যে পৌছেছে: তুরস্ক কৃষ্ণ সাগরে অবরোধের মুখে পড়া ইউক্রেনীয় খাদ্যশস্য রফতানির অবরোধ অবসানের আলোচনায় একটি সমঝোতায় হয়েছে বলে দাবি করেছে তুরস্ক। কৃষ্ণসাগর দিয়ে খাদ্যশস্য সরবরাহ নিয়ে ইস্তাম্বুলে বৈঠক চলছে ইউক্রেন এবং রাশিয়ার। খবর বিবিসির।

তুরস্কের ইস্তাম্বুলে বুধবার (১৩ জুলাই) বৈঠকে বসেছিল ইউক্রেন, রাশিয়া, জাতিসংঘ এবং তুরস্কের প্রতিনিধি। বৈঠকে যুদ্ধ পরিস্থিতিতে কৃষ্ণসাগর দিয়ে খাদ্যশস্য সরবরাহ নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে দুই দেশ ঐকমত্যে পৌঁছাতে পেরেছে বলে জানিয়েছেন তুরস্ক এবং জাতিসংঘের প্রতিনিধি। বৈঠকে আলোচনার বিষয়ে তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী হুলুসি আকার জানান, রাশিয়া ও ইউক্রেন শস্য পরিবহনের জন্য সমুদ্র পথের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সম্মত হয়েছে। তিনি আরও জানান, আগামী সপ্তাহে তুরস্কে অনুষ্ঠিতব্য পরের আলোচনায় এই বিষয়ে চূড়ান্ত চুক্তি স্বাক্ষর হবে। আরও পড়ুন: ইউক্রেন পরিস্থিতি নিয়ে পুতিন-এরদোগানের ফোনালাপ জাতিসংঘের প্রধান আন্তোনিও গুতেরেস জানিয়েছেন, আগামী সপ্তাহের মধ্যে ইউক্রেন এবং রাশিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করতে পারবে বলে তারা আশাবাদী। এর ফলে পৃথিবীজুড়ে যে খাদ্যসংকট শুরু হয়েছে, তা খানিকটা বাগে আসবে বলে মনে করছেন গুতেরেস। বস্তুত, বুধবার বৈঠকের পর তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী তথা ওই বৈঠকের অন্যতম প্রতিনিধি জানিয়েছেন, তিনিও বৈঠক নিয়ে অত্যন্ত আশাবাদী। সড়ক, রেল পথ ও নতুন একটি নৌপথে কিছু পরিমাণ শস্য রফতানি করতে পারছে ইউক্রেন। তবে গত মাসে এই রফতানির পরিমাণ ছিল মাত্র ২.৫ মিলিয়ন টন। যুদ্ধের আগে গড়ে ৮ মিলিয়ন টন খাদ্যশস্য রফতানি হতো। ইউক্রেনীয় বন্দর ওডেসাকে রফতানির অপেক্ষায় রয়েছে কয়েক মিলিয়ন টন। আরও পড়ুন: ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ সাময়িক স্থগিত রাশিয়ার যুদ্ধ পরিস্থিতিতে ইউক্রেনের বন্দরে প্রায় ২২ মিলিয়ন টন খাদ্যশস্য আটকে আছে। কৃষ্ণসাগর দিয়ে ওই শস্য আফ্রিকা-সহ পুরো পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়ে। ইউক্রেন এবং রাশিয়ার যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর রাশিয়া ওই শস্য বাইরে যেতে দিচ্ছে না বলে ইউক্রেনের অভিযোগ। এই পরিস্থিতিতে পুরো বিশ্বেই খাদ্যসংকট তৈরি হয়েছে। আফ্রিকার একাধিক দেশ খাদ্যসংকটে পড়েছে। বিষয়টি নিয়ে সমাধানসূত্রে পৌঁছাতে তুরস্ক এগিয়ে আসে। বুধবার (১৩ জুলাই) ইস্তাম্বুলে বৈঠকে বসে দুই দেশ। ইউক্রেন এবং রাশিয়া বৈঠক মনিয়ে এখনো মুখ না খুললেও জাতিসংঘ এবং তুরস্ক দুইপক্ষই জানিয়েছে যে, বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে। আগামী মাসের মধ্যে সমাধানসূত্রে পৌঁছানো গেলে ইউক্রেনের বন্দর দিয়ে জাহাজ খাদ্যশস্য নিয়ে বার হতে পারবে বলে মনে করা হচ্ছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply