Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ইউক্রেনে যুদ্ধ শেষ করার সম্ভাব্যতা যাচাই, যা বলছে রাশিয়া




রাশিয়ার আরও ক্ষতি করার জন্য ইউক্রেন সংঘাত জিইয়ে রাখছে পশ্চিমা দেশগুলো। তবে এই সংঘাত যত দীর্ঘ হবে, শান্তিপূর্ণ সমাধানের মাধ্যমে যুদ্ধ শেষ করা ততই কঠিন হবে। ইউক্রেনে যুদ্ধ শেষ করার সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের অংশ হিসেবে সম্প্রতি এসব কথা বলেছেন সিনিয়র রুশ কূটনীতিক গেনাডি গ্যাতিলভ। জেনেভায় জাতিসংঘে নিযুক্ত রাশিয়ার স্থায়ী এই প্রতিনিধি রোববার (২১ আগস্ট) সংবাদমাধ্যম ফিন্যান্সিয়াল টাইমসকে বলেন, ইউক্রেনের বর্তমান অবস্থান রাশিয়ার সঙ্গে তাদের কূটনৈতিক যোগাযোগকে প্রায় অসম্ভব করে তুলেছে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা ইউক্রেন ইস্যুকে রাশিয়ার ওপর চাপ সৃষ্টি করতে, রাশিয়াকে বিচ্ছিন্ন করার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে। যা অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিকভাবে আমাদের অবস্থানকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে।’ কূটনীতিক গেনাডি গ্যাতিলভ বলেন, কিয়েভ গত মার্চ মাসে রাশিয়ার সঙ্গে সরাসরি আলোচনা বন্ধ করে দেয়। অথচ এই আলোচনাই ছিল সংঘাত সমাধানের সম্ভাব্য পথ। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির দাবি, বুচা শহরে যুদ্ধাপরাধ করেছে রাশিয়া। এজন্য মস্কোর সঙ্গে আর আলোচনা সম্ভব নয়। তবে রাশিয়া বরাবরই এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে। আরও পড়ুন: স্বাধীনতা দিবসে বড় হামলা চালাবে রাশিয়া, শঙ্কা জেলেনস্কির রুশ কূটনীতিক গ্যাতিলভের মতে, সংঘাতের অবসান ঘটাতে জেলেনস্কি বারবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে আলোচনায় বসার প্রস্তুতির কথা জানিয়েছেন। কিন্তু তার আগে জুড়ে দিয়েছেন রুশ সেনা প্রত্যাহারের শর্ত। ফলে পুতিন-জেলেনস্কি বৈঠকের জন্য কোনো ‘ব্যবহারিক প্ল্যাটফর্ম’ ছিল না বলেই বিশ্বাস করে মস্কো। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ফিন্যান্সিয়াল টাইমসকে রুশ এই কূটনীতিক আরও বলেন, ‘এখন আমি কূটনৈতিক যোগাযোগের কোনো সম্ভাবনা দেখছি না। আর সংঘাত যত বেশি হবে, এর কূটনৈতিক সমাধান তত কঠিন হবে।’ গেনাডি গ্যাতিলভ বলেন, ‘রাশিয়ার প্রতিবেশীর (ইউক্রেন) স্বার্থ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো চিন্তা নেই। ইউক্রেনের সঙ্গে রাশিয়া শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাবে-এটিই ওয়াশিংটনের একমাত্র চাওয়া।’






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply