Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » আর্কটিক সাগরে বিশাল সামরিক মহড়া রাশিয়ার




ইউক্রেনে একের পর এক গণকবরের সন্ধান মেলায় রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরেক দফা গণহত্যা ও নিপীড়নের অভিযোগ তুলেছে কিয়েভ। অন্যদিকে রাশিয়ার কাছ থেকে দখলমুক্ত করা ইজিয়াম শহরে গণকবরের সন্ধান মেলায়, এ নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে এসবের মধ্যেই আর্কটিক সাগরে যুদ্ধসরঞ্জাম নিয়ে বিশাল সামরিক মহড়া চালিয়েছে রুশ সেনারা। ছবি: সংগৃহীত বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ইউক্রেনের সঙ্গে চলমান যুদ্ধের মধ্যেই আলাস্কা পর্বতের বিপরীতে আর্কটিক সাগরে শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সামরিক মহড়া চালায় রুশ সেনারা। মহড়ায় যুদ্ধজাহাজ থেকে ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণসহ নানা রণকৌশলের অনুশীলন করা হয়। এদিকে ইউক্রেনের বিভিন্ন অঞ্চলে অব্যাহত আছে রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা। প্রতিরোধের অংশ হিসেবে রাশিয়ার কাছ থেকে বেশ কয়েকটি শহর দখলমুক্ত করেছে ইউক্রেন। যেখানে পাওয়া গেছে গণকবরও। আর রুশ সেনাদের কাছ থেকে সবশেষ দখলমুক্ত করা উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় শহর ইজিয়ামে একটি গণকবরে ৪৪০ জনের মরদেহ পাওয়ার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে কিয়েভ। একের পর এক গণকবরের সন্ধান মেলায় রাশিয়ার বিরুদ্ধে আবারও ইউক্রেনীয়দের ওপর গণহত্যা ও নিপীড়নের অভিযোগ তুলেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। তিনি বলেন, ইউক্রেনীয়দের ওপর নির্বিচারে গুলি ছোড়া হচ্ছে। বহু বেসামরিক নাগরিক নিহত হচ্ছেন। সুনির্দিষ্ট তথ্য ও দলিল শুধু ইউক্রেনজুড়েই নয়, পুরো আন্তর্জাতিক মহলের কাছেই আছে। আরও পড়ুন: ইউক্রেন যুদ্ধ দ্রুত শেষ করতে চান পুতিন এ বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রও। যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটিতে রুশ বাহিনী যে ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে, গণকবর তারই প্রমাণ বলে মন্তব্য করেছে হোয়াইট হাউস। তারপরও ইউক্রেনে সামরিক অভিযানে রাশিয়া তাদের প্রাথমিক লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে বলে দাবি পেন্টাগনের। হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জন কিরবির মতে, ইউক্রেনে একের পর এক সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চলছে। গণকবরই এর প্রমাণ। রাশিয়ার এবার থামা উচিত বলে মনে করে যুক্তরাষ্ট্র। অন্যদিকে ইউক্রেনীয় বাহিনীকে শক্তিশালী করতে কিয়েভকে আরও ৬০ কোটি ডলার সামরিক সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply