Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » বাকিংহাম প্যালেসে রানির মরদেহ, শ্রদ্ধা জানাতে হাজারো মানুষ সমবেত




বাকিংহাম প্যালেসে রানির মরদেহ, শ্রদ্ধা জানাতে হাজারো মানুষ সমবেত স্কটল্যান্ডের এডিনবরা থেকে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মরদেহ যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে আনা হয়েছে। ছবি : রয়টার্স স্কটল্যান্ডের এডিনবরা থেকে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মরদেহ যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে আনা হয়েছে। এখন রানির মরদেহ লন্ডনের বাকিংহাম প্যালেসে রয়েছে। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মরদেহবাহী গাড়িবহর বাকিংহাম প্যালেসে পৌছায়। খবর বিবিসি ও রয়টার্সের। এর আগে রানির মরদেহ একটি সামরিক বিমানে করে লন্ডনে আনা হয়। লন্ডনের নর্থহল্ট বিমানঘাঁটিতে মরদেহ গ্রহণ করেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাস ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেস। এ সময় রানির কফিনের সঙ্গে ছিলেন তাঁর মেয়ে প্রিন্সেস অ্যান। বিমানঘাঁটি থেকে বাকিংহাম প্যালেস পর্যন্ত ১৪ মাইল পথের দুই পাশে হাজারো মানুষ সমবেত হয়ে রানির প্রতি শ্রদ্ধা জানান। বাকিংহাম প্যালেসে রানির মরদেহ গ্রহণ করেন প্রিন্স উইলিয়াম ও হ্যারি। বাকিংহাম প্যালেস লন্ডনে রানির সরকারি আবাসস্থল ও দপ্তর। আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবেতে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে আজ বুধবার থেকে চারদিন তাঁর কফিনটি লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার হলে রাখা হবে। সেখানে সাধারণ মানুষ রানির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পারবেন। রানির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় ৫০০ জনের বেশি বিদেশি অতিথি উপস্থিত থাকবেন বলে আশা করছে যুক্তরাজ্য সরকার। এরই মধ্যে বিশ্বের অধিকাংশ দেশের রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। যুক্তরাজ্যের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে, এমন সব দেশের নেতাকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে। রানির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার আয়োজনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেন এবং কানাডা, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীরা উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর মধ্য দিয়ে রানির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া আয়োজন ঘিরে যুক্তরাজ্যে অন্যতম বৃহৎ কূটনৈতিক জমায়েত হতে যাচ্ছে। গত বৃহস্পতিবার স্কটল্যান্ডের বালমোরাল প্রাসাদে মারা যান রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। এ সময় তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৬ বছর। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ ৭০ বছর সিংহাসনে ছিলেন। ব্রিটেনের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সময় সিংহাসন অলংকৃত করেছেন তিনি






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply