Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » যুক্তরাষ্ট্র: ‘সভ্য’ দেশের পুলিশের প্রশ্নবিদ্ধ কর্মকাণ্ড




যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে বন্দুক হামলার ঘটনা। বিভিন্ন পর্যবেক্ষণকারী সংস্থার মতে, চলতি বছরের প্রথম পাঁচ মাসেই দেশটিতে প্রাণ গেছে দুই শতাধিক মানুষের। একের পর এক বন্দুক হামলায় সাধারণ মানুষ যখন আতঙ্কে, তখন নতুন করে প্রশ্ন উঠেছে মার্কিন পুলিশের ভূমিকা নিয়েও। মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্টের এক প্রতিবেদন অনুসারে, ২০১৫ সাল থেকে এ পর্যন্ত প্রতিবছর যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন গড়ে প্রায় ১ হাজার মানুষ। ২০১৫ সাল থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে দায়িত্বরত ​​পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রতিটি গুলিবর্ষণের ঘটনার তথ্য সংগ্রহ করা শুরু করে দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট। এর আগে ২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ফার্গুসনে মাইকেল ব্রাউন নামে একজন নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি পুলিশের হাতে নিহত হওয়ার পর এক তদন্তে বেরিয়ে আসে যে, দেশটির পুলিশ যত গুলি বা নির্যাতনের ঘটনা ঘটিয়েছে, তার অর্ধেকেরও বেশি প্রকাশ করেনি এফবিআই। আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীর গুলিতে একই পরিবারের তিনজন নিহত পাঁচ বছরেরও বেশি সময় ধরে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ, সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট এবং পুলিশ প্রতিবেদনের ওপর নির্ভর করে তৈরি ওয়াশিংটন পোস্টের তথ্য বিশ্লেষণে দেখা গেছে, এই সময়ের মধ্যে প্রাণঘাতী গুলির সংখ্যা ও পরিস্থিতি এবং ভুক্তভোগীদের সামগ্রিক হারে তুলনামূলক কোনো পরিবর্তন আসেনি। গত বছর অর্থাৎ ২০২১ সালেও পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন ১ হাজার ৪৯ জন। ওয়াশিংটন পোস্ট বলছে, যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বন্দুক হামলা বা এ ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনায় প্রতি বছর গড়ে প্রায় ১ হাজার মানুষ প্রাণ হারান। পুলিশের গুলিতেও নিহত হন ঠিক একই সংখ্যক মানুষ। যদিও পুলিশের গুলিতে নিহতদের অর্ধেকই শ্বেতাঙ্গ, তবে জনসংখ্যার হার বিবেচনায় কৃষ্ণাঙ্গরাই ভুক্তভোগী হচ্ছেন বেশি। যুক্তরাষ্ট্রের মোট জনসংখ্যার প্রায় ১৩ শতাংশ কৃষ্ণাঙ্গ। এছাড়া পুলিশের হাতে নিহতদের মধ্যে ৯৫ শতাংশেরও বেশি পুরুষ, যাদের বয়স ২০ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply