Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » সুপার সাইক্লোন 'সিত্রাং' নিয়ে নতুন তথ্য ভারতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তরের




সুপার সাইক্লোন 'সিত্রাং' নিয়ে নতুন তথ্য দিয়েছে ভারতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তর। বঙ্গোপসাগরে ভারতীয় উপকূলে আগামী মঙ্গলবার নাগাদ (১৮ অক্টোবর) সুপার সাইক্লোন ‘সিত্রাং’ আঘাত হানার সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েছে ইন্ডিয়া মেটিওরোলজিক্যাল ডিপার্টমেন্ট (আইএমডি)। শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) আইএমডির একজন শীর্ষ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এই ধরনের কোনো হুমকি নেই এবং লোকদের আতঙ্ক হওয়ার কোনো কারণ নেই। এনডটিভি জানায়, কানাডার সাসকাচোয়ান ইউনিভার্সিটির আবহাওয়া ও জলবায়ু বিষয়ক একজন পিএইচডি গবেষকের নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করার পর গুঞ্জন উঠে। এদিকে ভারতের ভুবনেশ্বরের আঞ্চলিক আবহাওয়া কেন্দ্র জানায়, আইএমডি ঘূর্ণিঝড়ের জন্য কোনো ধরণের পূর্বাভাস জারি করেনি এবং উপকূলীয় রাজ্যে সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়ের গুজব থেকে দূরে থাকার জন্য ওড়িশার লোকদের পরামর্শ দিয়েছে। আইএমডির আঞ্চলিক কেন্দ্র এক টুইটার বার্তায় জানায়, ভারতীয় আবহাওয়া বিভাগ ঘূর্ণিঝড়ের বিষয়ে কোনো পূর্বাভাস দেয়নি বা এই বিষয়ে কোনো ইঙ্গিতও দেয়নি। অনুগ্রহ করে গুজব থেকে দূরে থাকুন। তারা আরও লিখেছে, আমরা আবহাওয়া সংক্রান্ত সঠিক তথ্য দেওয়ার জন্য ২৪ ঘণ্টা কাজ করছি। তাই দয়া করে গুজব থেকে দূরে থাকুন। আইএমডি এর ব্যাখ্যা দিয়ে আরও বলেছে, আগামী মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) আন্দামান সাগরে একটি সাইক্লোনিক সার্কুলেশনের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ২০ অক্টোবর একটি নিম্নচাপে রূপান্তরিত হওয়ার আগে পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগরের দিকে অগ্রসর হবে। তবে এটি সুপার সাইক্লোনে পরিণত হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। ভারতের সিনিয়র আবহাওয়া বিজ্ঞানী উমাশঙ্কর দাশ দেশটির বার্তা সংস্থা পিটিআইকে বলেন, আইএমডি ১৪ অক্টোবর থেকে ২০ অক্টোবরের মধ্যে বঙ্গোপসাগরে সাইক্লোনিক সার্কুলেশন গঠনের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।তবে সব সাইক্লোনিক সার্কুলেশন ঘুর্ণিঝড়ে রূপ নেয় না। এর আগে কানাডার সাসকাচুয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের আবহাওয়া ও জলবায়ু বিষয়ক গবেষক মোস্তফা কামাল পলাশ জানান, সিত্রাং নামের ঘূর্ণিঝড় নিয়ে সর্বশেষ পূর্বাভাসে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের (যুক্তরাষ্ট্রের দুটি, কানাডা, জার্মানি, ইউরোপীয় ইউনিয়নের ১টি করে) ভিন্ন ভিন্ন ৫টি আবহাওয়া পূর্বাভাস মডেলগুলোর সবাই একমত হয়েছে যে, ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ‘তবে বর্তমানে যে পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে সেটি বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, ঘূর্ণিঝড়টি আগামী ২২ থেকে ২৫ অক্টোবরের মধ্যে ভারতের ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের মাঝামাঝি কোনো উপকূল দিয়ে স্থলভাগে আঘাত হানতে পারে,’ বলেন তিনি। গবেষক মোস্তফা কামাল পলাশ আরও জানান, ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি না হওয়া পর্যন্ত মডেলগুলোর পূর্বাভাস নিয়মিত পরিবর্তন হতেই থাকবে। এমনকি এটি স্থলভাগে আঘাত করার ৩ থেকে ৬ ঘণ্টা পূর্ব পর্যন্তও আঘাত হানার স্থান ও শক্তির ব্যাপক পরিবর্তন হতে পারে। ‘তাই এ বিষয়ে আগে থেকে নির্দিষ্ট করে কোনো কিছু বলা খুবই কঠিন। অর্থাৎ এটি আসলে কতটা শক্তিশালী ঝড়ে রূপান্তরিত হতে পারে সেটি বলার সময় এখনও আসেনি। তবে ঝড়টির শক্তি কম নির্দেশ করছে সেটি অবশ্যই ভালো খবর’, বলেন মোস্তফা কামাল।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply