Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীদের এলোপাতাড়ি গুলিতে নিহত ১৪




যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়া এবং পেনসেলভেনিয়া অঙ্গরাজ্যে বন্দুকধারীদের এলোপাতাড়ি গুলিতে ১৪ জন নিহত হয়েছে। স্থানীয় সময় শনিবার (৫ নভেম্বর) রাতে গোলাগুলির এ ঘটনা ঘটে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানায়, শনিবার রাতে যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়ার সাউথ স্ট্রিটের কেনসিংটন এবং অ্যালেগেনি এলাকায় একাধিক বন্দুকধারী এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলেই ৩ জন নিহত হয়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ১১ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে ৭ জন মারা যায়। ফিলাডেলফিয়ার পুলিশ ইন্সপেক্টর ডি.এফ. জানান, সাউথ স্ট্রিট এলাকায় টহলরত পুলিশ কর্মকর্তারা বন্দুকের গুলির শব্দ শুনেছেন এবং বেশ কয়েকজন বন্দুকধারীকে ভিড়ের মধ্যে গুলি করতে দেখেছেন। সম্ভবত হাতাহাতির পর বন্দুকধারীরা পাঁচটি বন্দুক দিয়ে এলোপাতাড়ি গুলি করে। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে দুটি হ্যান্ডগান উদ্ধার করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন তিনি। এদিকে পেনসেলভেনিয়া অঙ্গরাজ্যে গুলির ঘটনায় এক বন্দুকধারীসহ চারজন নিহত হয়েছে। রাজ্য পুলিশ জানায়, এক ব্যক্তি স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র নিয়ে বেশ কয়েকটি গাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় বন্দুকধারীর গুলিতে প্রথমে এক নারী এবং পরে আরো এক নারী ও পুরুষ নিহত হয়। পরে পুলিশ এসে বন্দুকধারীকে নিরস্ত্র করার চেষ্টা করলে সে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এ সময় পুলিশের গুলিতে নিহত হয় ওই বন্দুকধারী। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের সম্পর্কে অন্য কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে বাইডেন নিকৃষ্টতম প্রেসিডেন্ট: ট্রাম্প বন্দুক সহিংসতা নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য কঠোর পদক্ষেপ নিতে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে বন্দুক সুরক্ষা আন্দোলনকারীরা। অলাভজনক গবেষণা গোষ্ঠী গান ভায়োলেন্স আর্কাইভের তথ্যানুযায়ী, চলতি বছর এ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে অন্তত ৫৮৩টি নির্বিচার গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। নির্বিচার গুলিবর্ষণের এ ধারা থামাতে অ্যাসাল্ট রাইফেল নিষিদ্ধ করা, ব্যাকগ্রাউন্ড চেক বিস্তৃত করা ও বন্দুক নিয়ন্ত্রণের অন্যান্য পদক্ষেপ নেয়ার জন্য মার্কিন কংগ্রেসের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply