Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

সাম্প্রতিক খবর


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

mujib

w

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » ইমরান খানের প্রস্তাব কেন ফিরিয়ে দিলো জামায়াত?




পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়ার প্রাদেশিক পরিষদে জামায়াত-ই-ইসলামির (জেআই) সঙ্গে জোট করে সরকার গঠনের প্রস্তাব দিয়েছিল ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। কিন্তু তাদের সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে। পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ফাইল ছবি খাইবার পাখতুনখোয়ায় জামায়াত-ই-ইসলামির আমির মোহাম্মদ ইব্রাহিম খান মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) জানান, পিটিআইয়ের সঙ্গে জোট করবে না তার দল। এছাড়া পিটিআই তাদের সঙ্গে জোট করে সরকার গঠন করার যে কথা বলছে, তা ভিত্তিহীন বলেও দাবি করেন তিনি। মূলত জামায়াত-ই-ইসলামির সঙ্গে জোট করে খাইবার পাখতুনখোয়ায় পিটিআই সরকার গঠন করছে, এমন সংবাদ মূলধারার গণমাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর বিবৃতি দিয়ে দলের অবস্থান স্পষ্ট করেন ইব্রাহিম খান। আরও পড়ুন: পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন আসিফ জারদারি! তিনি বলেন, যেকোনো দলের সঙ্গে (জোট করে) সরকার গঠন করার অধিকার পিটিআইয়ের আছে। কিন্তু এক্ষেত্রে জামায়াতের নাম ব্যবহার করার কোনো ন্যায্যতা নেই। পিটিআইয়ের সঙ্গে কোনো ধরনের জোট করার সিদ্ধান্ত নেয়নি জেআই। জেআইয়ের সঙ্গে জোট করে সরকার গঠনের ব্যাপারে পিটিআই যে বিবৃতি দিয়েছে, তা একেবারে অযৌক্তিক ও অনৈতিক বলেও মন্তব্য করেন ইব্রাহিম খান। এদিকে, নির্বাচনের পর পাকিস্তানে সরকার গঠনের জন্য একটি চুক্তিতে পৌঁছেছে নওয়াজ শরিফ এবং বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির দল। বিলাওয়ালের পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) বলছে, এই চুক্তি নওয়াজ শরিফের পাকিস্তান মুসলিম লীগকে (পিএমএল-এন) প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী নির্বাচন করতে সহায়তা করবে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, এই দুটি দলই একজোট হয়ে ২০২২ সালে ইমরান খানকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিয়েছিল। তবে এবার ইমরানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা সর্বাধিক আসন জিতেছে। আরও পড়ুন: ইমরানকে ঠেকাতে নওয়াজের সঙ্গে সমঝোতায় বিলাওয়াল পিপিপি নেতা আসিফ আলী জারদারি এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, তার দল এবং পিএমএল-এন একে অপরের বিরুদ্ধে নির্বাচনে লড়াই করলেও তারা জাতির স্বার্থে এক হয়েছে। জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য শাহবাজ শরিফকে পিপিপি’র সমর্থনের বিনিময়ে প্রেসিডেন্ট পদে জারদারিকে সমর্থন করতে সম্মত হয়েছে পিএমএল-এন নেতৃত্ব। অর্থাৎ পরিস্থিতি অপরিবর্তিত থাকলে, পিএমএল-এন থেকে প্রধানমন্ত্রী এবং পিপিপি থেকে পরবর্তী প্রেসিডেন্ট পাচ্ছে পাকিস্তান।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply