Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

সাম্প্রতিক খবর


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

mujib

w

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » পলাতক জয়া প্রদাকে ৬ মার্চের মধ্যে গ্রেফতার করা হবে!




সম্প্রতি গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে ভারতের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ও বিজেপির সাবেক সংসদ সদস্য জয়া প্রদার বিরুদ্ধে। অভিনেত্রী পলাতক থাকায় আগামী ৬ মার্চের মধ্যে দ্রুত গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারিক আদালত। ২০১৯ সালে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের মামলায় জামিন অযোগ্য, গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ‘পলাতক’ বলি অভিনেত্রী জয়া প্রদার বিরুদ্ধে। ছবি: সংগৃহীত উত্তর প্রদেশের রামপুরের একটি আদালত অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে এ নির্দেশ জারি করে। ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনের সময় আদর্শ আচরণবিধি লঙ্ঘনের জন্য মামলা করা হয় জয়ার বিরুদ্ধে। এ মামলায় আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ ছিল জয়ার। কিন্তু আদালতের নির্দেশ না মেনে কখনোই হাজিরা দেননি জয়া। সম্প্রতি যোগাযোগের চেষ্টা করা হয় অভিনেত্রীর সঙ্গে। একাধিক মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে সব কটির সংযোগই বন্ধ পাওয়া যায় নায়িকার। এদিকে নিয়ম ভঙ্গের পর মামলায় এ পর্যন্ত কোনো হাজিরা না দেয়ায় জয়া মোট ৭ বার জামিন অযোগ্য হয়েছে। সবদিক বিশ্লেষণ করে বিচারক শোভিত বনসল জয়াকে পলাতক ঘোষণা করেন। এরপর বিচারক রামপুরের পুলিশ সুপারকে আগামী ৬ মার্চের মধ্যে অভিনেত্রীকে গ্রেফতার করার নির্দেশ দেন। ২০১৯ সালে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের মামলায় জামিন অযোগ্য, গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি বলি অভিনেত্রী জয়া প্রদার বিরুদ্ধে। ছবি: সংগৃহীত এ বিষয়ে সিনিয়র প্রসিকিউশন অফিসার অমরনাথ তিওয়ারি বলেন, মামলার দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও আদালতে একবারের জন্যও হাজির হননি জয়া। তাই গ্রেফতার করে অভিনেত্রীকে হাজির করার সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন আদালত। আরও পড়ুন: অস্কারের দৌড়ে প্রিয়াঙ্কার যে সিনেমা ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সিনেমায় যখন ভালো অভিনয় করে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছান তখনই রাজনীতিতে নামেন জয়া। ২০০৪ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ভারতের উত্তর প্রদেশের রামপুর থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। এরপর ২০১৯ সালে আবারও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামেন অভিনেত্রী। ক্ষমতায় থাকতে ২০১৯ সালে রামপুর থেকে লোকসভা নির্বাচনে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) মনোনীত প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন জয়া। কিন্তু ওই সময় নির্বাচন আচরণবিধি অমান্য করেন তিনি। নিষেধ সত্ত্বেও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা চলাকালীন একটি রাস্তা উদ্বোধন করেন। তাই রামপুর থানায় জয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা হয় নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের মামলা। আরও পড়ুন: ২৬ বছরের ছোট বিদেশিনীকে বিয়ে করে কী বললেন সাহিল খান? প্রসঙ্গত, সাত থেকে নয়ের দশকে হিন্দি সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া প্রদা। শুধু হিন্দি নয়, অভিনয় করেছেন তামিল, কন্নড়, মালয়ালম, বাংলা ও মারাঠি সিনেমায়ও। জয়ার অভিনীত কিছু উল্লেখযোগ্য সিনেমা হলো শ্রী শ্রী মুবা, সারগাম, সিন্দুর, মা, আখেরি রাস্তা, আজ কা অর্জুন প্রভৃতি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply