Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

সাম্প্রতিক খবর


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

mujib

w

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » চীনের সঙ্গে চুক্তি করেই ‘ভারত খেদাও’ হুংকার মালদ্বীপের




নিজের ভারত-বিরোধী অবস্থান আরও একবার স্পষ্ট করলেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মোহামেদ মুইজ্জু। চীনের সঙ্গে প্রতিরক্ষা চুক্তি করেই তিনি জানিয়েছেন, আগামী ১০ মে’র পর ভারতীয় কোনো সেনা সদস্য মালদ্বীপে থাকবে না। এমনকি, বেসামরিক পোশাকেও তারা দেশটিতে অবস্থান করতে পারবেন না। বার্তা সংস্থা পিটিআই’র বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে এনডিটিভি। মালদ্বীপের তিনটি বিমানবন্দরের মধ্যে একটির দায়িত্ব নিতে একটি ভারতীয় ‘বেসামরিক দল’ দ্বীপরাষ্ট্রটিতে পৌঁছানোর সপ্তাহ না পেরোতেই দিল্লির উদ্দেশে এমন কড়া বার্তা দিলেন প্রেসিডেন্ট মুইজ্জু। যদিও সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে দুই দেশ আগেই সম্মত হয়েছে। সংবাদমাধ্যম দ্য এডিশনের বরাতে প্রতিবেদনে বলা হয়, অ্যাটল দ্বীপ সফরের সময় অ্যাটল আইধাফুশি আবাসিক সম্প্রদায়ের উদ্দেশে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট বলেছেন, দেশ থেকে ভারতীয় সৈন্য প্রত্যাহার করার ক্ষেত্রে তার সরকারের সাফল্য নিয়ে যারা গুজব ছড়াচ্ছে, তারা পরিস্থিতি জটিল করার চেষ্টা করছে। তিনি আরও বলেন, অনেকে বলার চেষ্টা করছে যে, ভারতীয় সেনারা চলে যাচ্ছে না, তারা ইউনিফর্ম পাল্টে বেসামরিক পোশাকে ফিরে আসছে। কিন্তু আমাদের এমন চিন্তাভাবনা থাকা উচিত নয়, যা আমাদের মনে সন্দেহ তৈরি করে। বিনামূল্যে সামরিক সহায়তা পেতে চীনের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষরের দিনই মুইজ্জু বলেন, ১০ মে থেকে দেশে (মালদ্বীপে) কোনো ভারতীয় সেনা থাকবে না। ইউনিফর্ম এবং বেসামরিক পোশাকেও নয়। আমি এটি আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বলছি। উল্লেখ্য, গত ২ ফেব্রুয়ারি দিল্লিতে দুই পক্ষের মধ্যে একটি উচ্চ-পর্যায়ের বৈঠকে হয়। মালদ্বীপের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে তখন জানানো হয়েছিল, ভারত ১০ মে’র মধ্যে মালদ্বীপে তিনটি বিমানবন্দরে থাকা ভারতীয় সেনাদের স্থানান্তর করবে। সেই প্রক্রিয়ার প্রথম ধাপ ১০ মার্চের মধ্যে সম্পন্ন হবে। গত ৫ ফেব্রুয়ারি সংসদে দেয়া প্রথম ভাষণেও মুইজ্জু একই ধরনের বক্তব্য রাখেন। আরও পড়ুন: মালদ্বীপকে সামরিক সহায়তা দেবে চীন, কী করবে ভারত এদিকে, চীনের সঙ্গে একটি প্রতিরক্ষা সহযোগিতা চুক্তি স্বাক্ষর করেছে মালদ্বীপ। এর ফলে চীন থেকে বিনামূল্যে সামরিক সহায়তা পাবে দ্বীপরাষ্ট্রটি। বার্তা সংস্থা পিটিআইয়ের বরাত দিয়ে সোমবার (৪ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। এতে বলা হয়, ‘শক্তিশালী’ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক গড়ে তুলতে বিনামূল্যে সামরিক সহায়তা প্রদানের জন্য সোমবার মালদ্বীপের সঙ্গে একটি প্রতিরক্ষা সহযোগিতা চুক্তি স্বাক্ষর করেছে চীন। মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট তার দেশ থেকে ভারতীয় সেনাদের প্রথম দলকে প্রত্যাহারের সময়সীমা নির্ধারণ করে দেয়ার অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই এই চুক্তি স্বাক্ষর করা হলো। এনডিটিভি বলছে, মালদ্বীপের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ ঘাসান মাউমুন দুই দেশের মধ্যে প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়ানোর বিষয়ে আলোচনা করতে চীনের আন্তর্জাতিক সামরিক সহযোগিতা অফিসের ডেপুটি ডিরেক্টর মেজর জেনারেল ঝাং বাওকুনের সঙ্গে দেখা করেন। আরও পড়ুন: মালদ্বীপের কাছে নৌঘাঁটি গাড়ছে ভারত মালদ্বীপের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, মাউমুন এবং মেজর জেনারেল বাওকুন মালদ্বীপে চীনের সামরিক সহায়তা প্রদানের বিষয়ে একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এটি উভয় দেশের শক্তিশালী দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে আরও সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবে। তবে চীন ও মালদ্বীপের মধ্যে স্বাক্ষরিত প্রতিরক্ষা সহযোগিতা চুক্তির বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply