Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

সাম্প্রতিক খবর


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

mujib

w

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » পর্তুগালে আগাম নির্বাচন বিরোধী মধ্য ডানপন্থীদের জয় দাবি




পর্তুগালের আগাম নির্বাচনে জয় দাবি করেছে মধ্য ডানপন্থী ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (এডি)। অন্যদিকে পরাজয় মেনে নিয়েছে ক্ষমতাসীন দল সোশ্যালিস্ট পার্টি (পিএস)। তবে কোনো দলই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। খবর আল জাজিরার। ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্সের (এডি) নেতা লুইস মন্টিনিগ্রো। ছবি: সংগৃহীত গত রোববার (১০ মার্চ) পর্তুগালে আগাম জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সকাল থেকে পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি খুব বেশি দেখা না গেলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ে উপস্থিত। নির্বাচনে রেকর্ড ৬৬ শতাংশ ভোট পড়ে পর্তুগালের ২৪তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে। লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দেন বাংলাদেশি পর্তুগিজরাও।সন্ধ্যা নামতেই ফলাফল পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রগুলোতে বাড়ে বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীদের উপস্থিতি। প্রবাসী বাংলাদেশি সমর্থকরাও যোগ দেন সেখানে। একক দল হিসেবে যথেষ্ট জনসমর্থন পেলেও হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে ক্ষমতা ধরে রাখতে পারেনি সোশ্যালিস্ট পার্টি। আরও পড়ুন: রাজনীতি থেকে অবসর নিচ্ছেন এরদোয়ান সোমবার (১১ মার্চ) এক বিবৃতিতে পরাজয় স্বীকার করেন সোশ্যালিস্ট পার্টির নেতা পেদ্রো ‍নুনো সান্তোস। তিনি বলেন, আমাদের এটা মেনে নিতেই হবে। পর্তুগীজরা আসন্ন সংসদে নেতৃত্বের জন্য আমাদের বেছে নেয়নি। তবে এটি খুবই প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটি নির্বাচন হয়েছে। এর কিছুক্ষণ পরই জয় দাবি করে বিবৃতি দেন বিরোধী ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্সের (এডি) নেতা লুইস মন্টিনিগ্রো। তিনি তার সমর্থকদের বলেছেন, পর্তুগিজরা পরিবর্তনের পক্ষে ভোট দিয়েছেন। যদিও এডির জয়ের ব্যবধান খুব সামান্য। জয়ের ব্যবধানে খুব সামান্য হওয়ায় এডির সংখ্যাগরিষ্ঠ সরকার গঠনের সম্ভাবনা কম। রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পিএসের চেয়ে সামান্য ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে এডি। আরও পড়ুন: ইউক্রেনকে এবার ১০ হাজার ড্রোন দিচ্ছে যুক্তরাজ্য নির্বাচনে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে কট্টর ডানপন্থী দল চেগা। ফলে চেগার সমর্থন ছাড়া এডি সরকার গঠন করতে পারবে কি না, তা এখনই স্পষ্ট নয়। পার্লামেন্টের ২৩০টি আসনের মধ্যে এডি ও তার রক্ষণশীল মিত্র মাদেইরা জিতেছে ৭৯টি। পিএস ৭৭টি। ৪৮টি আসন পেয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে চেগা। দুর্নীতির অভিযোগের মুখে এখন থেকে চার মাস আগে পদত্যাগ করেন পর্তুগালের প্রধানমন্ত্রী আন্তোনিও কস্তা। এরপর গত ডিসেম্বরে পেদ্রো দলের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। দলে কস্তার স্থলাভিষিক্ত হন তিনি। এরপর আগাম নির্বাচন ডাকা হয়।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply