Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

সাম্প্রতিক খবর


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

mujib

w

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » ট্রাম্প নারীদের জন্য বিপজ্জনক: জিল বাইডেন




যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নারীদের জন্য বিপজ্জনক বলে মন্তব্য করেছেন ফার্স্ট লেডি জিল বাইডেন। জিল বাইডেন বলেন, গর্ভপাত নিয়ে ট্রাম্পের দৃষ্টিভঙ্গির কারণে তিনি নারীদের জন্য হুমকিস্বরুপ। এজন্য তাকে হোয়াইট হাউসে ফিরিয়ে আনা ঠিক হবে না বলেও মন্তব্য করেন জিল। ট্রাম্পকে নারীদের জন্য বিপজ্জনক বলেছেন ঝিল বাইডেন। ছবি:সংগৃহীত শুক্রবার (১ মার্চ) জর্জিয়ার আটলান্টায় তার 'ওমেন ফর বাইডেন' প্রচারণা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন জিল বাইডেন। তিনি বলেন, অথচ যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে ট্রাম্পের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বি তার স্বামী মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার পুরো ক্যারিয়ারে নারীদের উপরে তুলে ধরার জন্য কাজ করেছেন। জিল বাইডেন বলেন, কিন্তু ট্রাম্প তার পুরো জীবন কাটিয়েছেন নারীদের অস্তিত্বকে অবমূল্যায়ন করে। তিনি নারীদের দেহ নিয়ে উপহাস করেছেন ও সবসময় নারীদের কৃতিত্বকে ছোট করে দেখেছেন এবং মেয়েদের লাঞ্ছনা করে আনন্দ পেয়েছেন। আরও পড়ুন:সুপার টুইসডের আগে সুখবর পেলেন ট্রাম্প এ বিষয়ে তিনি ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ট্রাম্পের একটি রেফারেন্স উল্লেখ করেন। যা গণমাধ্যমগুলোর শিরোনাম হয়েছিল। এটি একটি রেকর্ডিং যাতে ট্রাম্পের ব্যক্তিগত কথোপকথন উঠে এসেছে। এখানে ট্রাম্প বলেছেন, মেয়েদের সঙ্গে সম্পর্কের ক্ষেত্রে ‘তারকা’ হওয়ার অনেক সুবিধা আছে। তিনি বলতে চেয়েছেন, তারকা হলে মেয়েদের সঙ্গে যে কোনকিছু করা সম্ভব। জিল বলেন, ট্রাম্প এখন ‘রো ভি ওয়েডকে’ হত্যা করতে চাইছেন। রো ভি ওয়েড হলো ১৯৭৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টের দেয়া একটি সিদ্ধান্ত। যাতে যুক্তরাষ্ট্রে গর্ভপাতকে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। ট্রাম্প তার মেয়াদে আদালতে তিনজন রক্ষণশীল বিচারপতি নিয়োগ করার পরে, এটি ২০২২ সালে আগের রায়কে বাতিল করে এবং বেশ কয়েকটি রাজ্য গর্ভপাতকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে। আরও পড়ুন:রিপাবলিকান পার্টির মনোনয়ন / ট্রাম্প না হ্যালি, জানা যাবে মঙ্গলবার এ সময় জড়ো হওয়া নারী ভোটারদের সামনে জিল বলেন, ‘এজন্য ট্রাম্প নারীদের জন্য এবং আমাদের পরিবারের জন্য বিপজ্জনক। তাকে আমাদের জিততে দেয়া উচিত হবে না।’ সূত্র: আর টি






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply