sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নির্দেশ মানতেই হবে ভারতকে!




 ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার নির্দেশ মানতেই হবে ভারতকে!

ক্রিকেট বিশ্বে মোটামুটি প্রচলিতই আছে, তিন মোড়লের ইশারায়ই চলে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। এই তিন মোড়লকেও সবার চেনা। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বা বিসিসিআই, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড-ইসিবি। যেকোনো সিদ্ধান্তে এই তিন দেশ সব সময়ই একপক্ষে থাকে। এই যেমন, আইপিএল আয়োজনের জন্য বিসিসিআইয়ের একপ্রকার জোরাজোরিতেই পেছানো হয়েছে এবারের টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ, এমন কথাও বেশ জোর দিয়েই বলছেন ক্রিকেট কূটনীতিকরা।

সে যাই হোক, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সম্পর্কে কিছুটা অবনতি হতে যাচ্ছে বোধ হয় এবার। অজি ক্রিকেট বোর্ডের সাম্প্রতিক কথাবার্তায় এমন ইঙ্গিতই পাওয়া যাচ্ছে!

অক্টোবরে নির্ধারিত বিশ্বকাপ না হওয়ায়, ডিসেম্বরেই পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়ায় যাচ্ছে ভারতীয়রা। নিয়ম মেনে সিরিজ শুরুর আগে সফরকারীদের কোয়ারেন্টিনে থাকার নিয়ম থাকলেও, ভারতীয় বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এই নিয়ম মানতে রাজি নয় তারা। তবে নিয়ম ভাঙতেও রাজি নয় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

ডিসেম্বরে সিরিজ শুরুর আগে অস্ট্রেলিয়ায় দুই সপ্তাহ আইসোলেশনে থাকতেই হবে ভারতীয় দলকে। বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলির অনুরোধ উপেক্ষা করেই এমন ঘোষণা দিয়েছেন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী।

যতোই যৌক্তিক হোক, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রতি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার ক্ষোভ থাকতেই পারে। অনেক চেষ্টা করেও এ বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পিছিয়ে যাওয়া রুখতে পারেনি তারা। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে আসর স্থগিত করতে বাধ্য হয়েছে আইসিসি। তবে শুধু করোনা নয়, ক্রিকেট রাজনীতিও বিশ্ব আসরের ভাগ্য নির্ধারণে ভূমিকা রেখেছে। নিজেদের স্বার্থ রক্ষায় নির্বিঘ্নে আইপিএল আয়োজনে বিশ্বকাপ স্থগিত করতে বিভিন্নভাবে আইসিসিকে চাপ দিয়েছে ভারত।

এই পরিস্থিতিতে বিশ্বকাপ পেছানোটা যৌক্তিক হয়েছে, আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে এমনটা বললেও, সুযোগ বুঝে এবার বিসিসিআইকে দু'কথা শুনিয়ে দিতে দেরি করেনি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ডিসেম্বরে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়ার কথা টিম ইন্ডিয়ার। আর্থিক লোকসান সহ বাড়তি ঝক্কি-ঝামেলা এড়াতে সেদেশে কোহলিদের আইসোলেশনের বাধ্যবাধকতা না রাখতে অনুরোধ করেছিলেন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি। কিন্তু, তা মানতে নারাজ সিএ।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার প্রধান নির্বাহী নিক হকলি বলেন,  দুই সপ্তাহের কোয়ারেন্টিনের বিষয়টি যৌক্তিক। তারা যাতে সুচারুভাবে কোয়ারেন্টিনে থাকতে পারে, সেটা নিশ্চিত করবো আমরা। নিয়মিত করোনা পরীক্ষা করা হবে। ট্রেনিংয়ে সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা দেয়া হবে। সিরিজের জন্য সেরা প্রস্তুতিই নিতে পারবে তারা। তবে কোনোভাবেই কোয়ারেন্টিনে না থেকে ম্যাচ খেলার সুযোগ নেই।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এমন কড়া হুঁশিয়ারির পর এখন পর্যন্ত ভারতীয় বোর্ডের পক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কে যে টানাপোড়েন চলছে, সেটি পরিষ্কার ফুটে উঠেছে। দেখার অপেক্ষা, শেষ পর্যন্ত কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় কথার লড়াই!






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply