sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » ফেলে যাওয়া ভয়ংকর মার্কিন বিমানগুলো যে অবস্থায় পেল তালেবান




দুই দশক পর বিদেশি সেনামুক্ত প্রথম সকাল দেখলো আফগানিস্তান। সোমবার, মধ্যরাতে যুক্তরাষ্ট্রের সবশেষ সামরিক বিমানটি ছেড়ে যাওয়ার পর কাবুল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে তালেবান। ফেলে যাওয়া ভয়ংকর মার্কিন বিমানগুলো যে অবস্থায় পেল তালেবান এদিকে মার্কিন সামরিক বাহিনী আফগানিস্তানের মাটি ছাড়ার আগে কাবুল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বহুসংখ্যক বিমান অকেজো করে রেখে গেছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা। এছাড়া বহু সাঁজোয়া যান এবং বিমানবন্দরে থাকা ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাও অকার্যকর করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে আল জাজিরা। মার্কিন সামরিক বাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ডের প্রধান জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জির বরাত দিয়ে মঙ্গলবার (৩১ আগস্ট) এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে আল জাজিরা। মার্কিন সামরিক বাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ডের প্রধান জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি জানিয়েছেন, সোমবার কাবুল ছেড়ে চলে আসার আগে হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবস্থান করা ৭৩টি বিমানের সামরিক সক্ষমতা নষ্ট অথবা অকেজো করে দিয়েছেন মার্কিন সেনা সদস্যরা। তিনি বলেন, ‘ওইসব বিমান আর কখনোই আকাশে উড়তে পারবে না। কখনই সেগুলো সচল করাও সম্ভব হবে না। জেনারেল ম্যাকেঞ্জি আরো জানান, এছাড়া কাবুল বিমানবন্দরে ফেলে আসা ৭০টি এমআরএপি সামরিক যান এবং ২৭টি হামভি সামরিক যানও অকেজো করে দেওয়া হয়েছে। এসব সামরিক যানও আর কেউই কখনও ব্যবহার কতে পারবে না। অকেজো করে দেওয়া এসব সামরিক যানের প্রতিটির মূল্য প্রায় ১০ লাখ মার্কিন ডলার। আরও পড়ুনঃ আফগানিস্তান-কোন-পথে-যাচ্ছে এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের দীর্ঘতম যুদ্ধের সমাপ্তি ঘিরে তৈরি হওয়া আবেগঘন পরিবেশকে ‘হৃদয় বিদারক’ বলে আখ্যায়িত করেছেন মার্কিন মেরিন জেনারেল ম্যাকাঞ্জি। এর আগে আমেরিকান নাগরিক ও ঝুঁকিপূর্ণ আফগানদের সরাতে অক্লান্ত ও বিপজ্জনক পরিশ্রম করতে হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের। মার্কিন কেন্দ্রীয় কমান্ডের প্রধান জেনারেল ম্যাকাঞ্জি বলেন, এই প্রত্যাহারের সঙ্গে অনেক হৃদয়বিদারক ঘটনা জড়িত। আমরা সবাইকে সরিয়ে আনতে পারিনি। যদিও তাদের সঙ্গে করে নিয়ে আসতে চেয়েছিলাম। আফগানিস্তানে মার্কিন শীর্ষ কূটনীতিক রস উইলসন কাবুল বিমানবন্দরের সর্বশেষ সি-১৭ সামরিক পরিবহন ফ্লাইটে ওঠেন। তখন রাত এগারোটা ৫৯ মিনিট। তার সঙ্গে মার্কিন সামরিক বাহিনীর ৮২তম এয়ারবোর্ন ডিভিশনের কমান্ডিং জেনারেলরাও ছিলেন। গত ১৪ আগস্ট থেকে কাবুল থেকে এক লাখ ২২ হাজার মানুষকে প্রত্যাহার করে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বলা হয়, ২০০১ সালে নিউইয়র্ক ও ওয়াশিংটনে হামলার নেপথ্যে থাকা আল-কায়েদা জঙ্গিদের আশ্রয় দিয়েছিল তালেবান। দীর্ঘ দু’দশকের লড়াই শেষে তারা ফের আরও শক্তিশালীভাবে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ হাতে পেয়েছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply