Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » মাত্র ২০ মিনিটে কোহলির রোগ সারাবেন গাভাস্কার!




ব্যাট হাতে কঠিন সময় পার করছেন বিরাট কোহলি। ফর্মহীনতা নিয়ে প্রতিনিয়ত সমালোচনায় পড়তে হচ্ছে তাকে। ক্রিকেট বিশ্লেষকদের কেউ তাকে বিশ্রামে যাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন তো কেউ আবার দল থেকেই বাদ দিয়ে দেয়ার পক্ষে। তবে ভারতের সাবেক ক্রিকেটার সুনীল গাভাস্কার বলছেন, মাত্র ২০ মিনিট সময় পেলে তিনি সারতে পারতেন কোহলির ফর্মহীনতার রোগ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিরাট কোহলির অভিষেক ২০০৮ সালে। এরপর আর তাকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। ব্যাট হাতে নিজেকে নিয়ে গেছেন বিশ্ব সেরার কাতারে। ক্রিকেটের তিন সংস্করণেই সমানভাবে আধিপত্য দেখিয়েছেন তিনি। একের পর এক সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন বিশ্ব ক্রিকেটে। খুব কম সময়ে টেস্ট ও ওয়ানডে ক্রিকেটে হাঁকিয়েছেন ৭০টি সেঞ্চুরি। একটা সময় মনে করা হতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শচীন টেন্ডুলকারের গড়া ১০০ সেঞ্চুরির রেকর্ড যদি কেউ ভাঙতে পারেন তবে সে ক্রিকেটারের নাম বিরাট কোহলি। কিন্তু ফর্মের তুঙ্গে থাকা কোহলি হঠাৎ করে হারিয়ে গেছেন অতল গহব্বরে। প্রায় তিন বছর ধরে সেঞ্চুরির দেখা তো পাচ্ছেনই না, ব্যাট হাতেও নেই আগের সে ধারাবাহিকতা। আরও পড়ুন: শেষ হলো বিসিবির এজিএম, আঞ্চলিক ক্রিকেট কাঠামো অনুমোদন তার এমন কঠিন পরিস্থিতিতে অনেক সাবেক ক্রিকেটার তার পাশে দাঁড়ালেও সমালোচনার পাল্লাটাই বেশি। কেউ তাকে বিশ্রাম দেয়ার পক্ষে তো কেউ আবার তাকে একেবারে দল থেকেই বাদ দিয়ে দেয়ার পক্ষে। তবে ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেটার সুনীল গাভাস্কার তাকে বিশ্রাম বা বাদ দেয়ার পক্ষে না। তিনি চান কোহলির সমস্যার সমাধান করতে। বিরাট কোহলির ফর্মহীনতা নিয়ে গণমাধ্যমকে গাভাস্কার বলেন, ‘আমি যদি ওর সঙ্গে ২০ মিনিট থাকতাম, তাহলে আমি তাকে বলতে পারতাম তাকে কী করতে হবে। এটি তাকে সাহায্য করতে পারে, আমি বলছি না এটি তাকে সাহায্য করবে, তবে এটি বিশেষত সেই অফ-স্টাম্পের খেলার ক্ষেত্রে হতে পারে।’ আরও পড়ুন: ঘাম না ঝরিয়েই জিতল নিউজিল্যান্ড তিনি যোগ করেন, ‘একজন ওপেনার হিসাবে সেই লাইন নিয়েই সমস্যা রয়েছে এবং আরও কিছু বিষয় রয়েছে আপনি যেগুলো করার চেষ্টা করছেন, যদি আমি তার সঙ্গে কথা বলার ২০ মিনিট সময় পাই, তাহলে আমি তাকে এই সব বলতে পারি।’






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply