Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » চীনের ‘এক দেশ দুই নীতি’ মানছে না তাইওয়ান




চীনের ‘এক দেশ দুই নীতি’ মানছে না তাইওয়ান বেইজিংয়ের দেয়া ‘এক দেশ দুই নীতি’ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে তাইপে। তাইওয়ানকে নিজেদের ভূখণ্ড দাবি করে চীনের শ্বেতপত্র প্রকাশের পরদিনই এমন ঘোষণা দিলেন তাইওয়ানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জোসেফ উ। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, তাইওয়ান প্রণালীতে চীনের লাগাতার সামরিক মহড়ার পাল্টা জবাবে রীতিমতো যুদ্ধসরঞ্জাম দিয়ে দ্বিতীয় দিনের মতো মহড়া চালাচ্ছে তাইওয়ান। বৃহস্পতিবারও (১১ আগস্ট) দক্ষিণাঞ্চলীয় পিংটুং উপকূলীয় এলাকায় দফায় দফায় গোলাবর্ষণসহ অত্যাধুনিক সাঁজোয়া যান ও যুদ্ধজাহাজ নিয়ে দেশটি সামরিক মহড়া চালায়। তবে তাইপের মহড়া শুরুর একদিনের ব্যবধানে সামরিক মহড়ার সমাপ্তি ঘোষণা দিয়েছে বেইজিং। চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মহড়া বন্ধ হলেও নিজেদের সক্ষমতা প্রমাণে ভবিষ্যতে নিয়মিত মহড়ার অংশ হিসেবে চলবে টহল, অব্যাহত থাকবে সীমান্তে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণও। এর আগে মার্কিন স্পিকারের তাইওয়ান সফরের জেরে সমুদ্র, নৌ ও আকাশপথে সপ্তাহব্যাপী নজিরবিহীন মহড়া চালায় চীন। তীব্র উত্তেজনার মধ্যেই চীনের দেয়া ‘এক দেশ দুই নীতি’ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে তাইওয়ান। এক বিবৃতিতে তাইওয়ানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, নতুন করে রাজনৈতিক সংকট সৃষ্টির চেষ্টা করছে বেইজিং।

তাইওয়ানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জোসেফ উ বলেন, বেইজিংয়ের ‘এক দেশ দুই নীতি’ প্রস্তাব আমরা সমর্থন করি না। এটি আন্তর্জাতিক আইনেরও লঙ্ঘন। আর মার্কিন স্পিকারের সফরকে মূলত বাহানা ধরে তাইওয়ানে চীন হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছে। এ অবস্থায় চীন যদি তাইওয়ানে হামলা চালায় তবে কোনোভাবেই ছাড় না দেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেন, চীনের বিষয়ে কথা বলতে তাইওয়ান সফর করিনি। তাইপের সঙ্গে ওয়াশিংটনের কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। চীনের হামলা চালানোর কোনোরকম চেষ্টা করলে বেইজিংকে কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে। তাইপেকে বেইজিংয়ের একঘরে করার চেষ্টা সফল হতে দেয়া হবে না বলেও জানান ন্যান্সি পেলোসি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply