Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » জাওয়াহিরি হত্যা: সন্ত্রাস দমনে পাকিস্তানের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন




পাকিস্তান ইন্টেলিজেন্স এজেন্সির প্রক্সি ভূমিকা পালন করা হাক্কানি নেটওয়ার্ক আল কায়েদা প্রধান আয়মান আল জাওয়াহিরির চলাফেরার সঙ্গে জড়িত থাকা এবং কাবুলে তার অবস্থান স্পষ্ট ইঙ্গিত দিচ্ছে পাকিস্তান এর সঙ্গে জড়িত ছিল। একটি থিংক ট্যাঙ্কের বরাতে বার্তা সংস্থা এএনআই জানিয়েছে, ৯/১১ হামলার পরিকল্পনাকারী জাওয়াহিরি গত ৩১ জুলাই কাবুলে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলায় নিহত হয়েছেন। জাওয়াহিরিকে টার্গেটের বিষয়ে পাকিস্তানের জড়িত থাকার সম্ভাবনা নিয়ে ইতোমধ্যে বিতর্ক রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র কিংবা পাকিস্তান কেউই সেই ভূমিকার ব্যাপারে প্রকাশ্যে কিছু বলেনি। ইউরোপিয়ান ফাউন্ডেশন ফর সাউথ এশিয়ান স্টাডিজ জানিয়েছে, উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো- কাবুলে তালেবান ক্ষমতা দখলের পর জাওয়াহিরি পাকিস্তানে থাকছিলেন বলে জানা যায়। মূলত পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্সের ছায়াতলে তিনি ছিলেন বলে মনে করা হয়। নিউ ইয়র্ক টাইমসের বরাতে থিংক ট্যাঙ্ক বলছে, বহু বছর ধরে পাকিস্তান সীমান্তে জাওয়াহিরি গোপন আশ্রয়ে ছিলেন বলে বিশ্বাস করা হয়। তবে কেন তিনি আফগানিস্তানে ফিরে গেলেন তা অস্পষ্ট। আরও পড়ুন : কিরগিজস্তান থেকে গিয়েছিল জাওয়াহিরিকে হত্যাকারী ড্রোন! আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর জাওয়াহিরি তার পরিবার নিয়ে কাবুলের নিরাপদ আশ্রয়ে ফিরে যান বলে মনে করা হয়। এএনআই জানিয়েছে, গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর দাবি করেছে, জাওয়াহিরিকে করাচিতে আশ্রয় দেওয়া হয়েছিল। গত বছরের আগস্টে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা সরে গেলে তিনি হাক্কারি নেটওয়ার্কের সহায়তায় চমন বর্ডার দিয়ে কাবুলে ফিরে যান। পাকিস্তানের ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্সের সঙ্গে হাক্কানি নেটওয়ার্কের এতটাই ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক যে গোয়েন্দা সংস্থাটি সাবেক প্রধান ফাইজ হামিদ তালেবানের ক্ষমতা দখলের পর সেখানে একাধিকবার সফর করেন। আমেরিকান এন্টারপ্রাইজ ইনস্টিটিউটের সিনিয়র ফেলো মাইকেল রুবিন বলেন, তিনি জানতে পারছেন, জাওয়াহিরির হত্যার সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্ক রয়েছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply